এই সময়ে চুলের যত্নে চাই তেল

amitumi_hair oil

চুলে তেল দেব। ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাখব। এরপর শ্যাম্পু! এত সময় কোথায় এখন? কথাটি কিছুটা সত্যিও বটে।
তাড়াহুড়োর জীবনে দাদি-নানিদের মতো আয়েশ করে তেল দেওয়ার সময় এখন আর নেই। তার পরও শীতকাল আসছে বলে কথা। চুল রক্ষা করতে চাইলে তেল লাগাতেই হবে। সপ্তাহে কত দিন, কীভাবে লাগাবেন, সেটা জানাতেই এই লেখা।

চুল অনেকটা ত্বকের মতোই। ত্বক শুষ্ক হলে চুলও শুষ্ক হয়। ত্বক তৈলাক্ত হলে চুলে তার প্রভাব পড়ে। তবে শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদের চুল তুলনামূলক চিকন হয়ে থাকে তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীদের চেয়ে। চুল যেমনই হোক, শীতকালে সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে তিনবার তেল লাগাতে হবে চুলে। না হলে খুশকি বেড়ে যাওয়া, চুল পড়ে যাওয়ার মতো বিপত্তি ঘটতে থাকবে। এমনটাই জানালেন আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা।

একটি ঘণ্টা। গোসলের আগে এটুকু সময় মাথায় তেল রাখতে পারলেই হবে। তবে মাথায় শুধু তেল লাগালেই হবে না। মাসাজও করতে হবে। এতে করে রক্তসঞ্চালন বৃদ্ধি পায়। মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে আঁচড়ালেও লাভ পাবেন। মোটা তোয়ালে গরম পানিতে চুবিয়ে নিংড়ে নিন। এরপর তেল লাগানো চুলে পেঁচিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ। গরম ভাপ লোমকূপগুলো খুলে দিতে সাহায্য করে। এতে ভেতরের ময়লা বের হয়ে আসে এবং তেলের পুষ্টিগুণ ভেতরে যেতে পারে। এ ছাড়া শ্যাম্পু করার আগে চুলে তেল লাগালে ফল ভালো হয়। কারণ, তখন মাথার ত্বকের ভেতর থেকে ময়লা উঠে আসে।

রাহিমা সুলতানা বলেন, ‘শুষ্ক চুলের অধিকারীদের সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন তেল দেওয়া ভাল। তেলের সঙ্গে মেথি মিশিয়ে নিতে পারেন। মেথি চুলের শুষ্কতা কমিয়ে আনে। শুষ্ক চুলে শ্যাম্পু ব্যবহারের পর কন্ডিশনার ব্যবহার বাধ্যতামূলক।’

তৈলাক্ত চুলে খুশকি বেড়ে গেলে তেলের সঙ্গে লেবু মিশিয়ে লাগাতে পারেন। চার টেবিল চামচ তেল নিলে এক টেবিল চামচ লেবুর রস মেশাতে হবে। তেলটা একটু গরম করে নিতে পারেন। চুল পড়া কমাতে তেলের সঙ্গে আমলকীর রস মেশান। এগুলো করার পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন।

সূত্র: প্রথমআলো

Check Also

ফর্সা ত্বক চান? মেনে চলুন এই ৩ নিয়ম

আবহাওয়ার খামখেয়ালি প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকেও। এই রোদ, বৃষ্টি, ধুলোবালি- সবকিছুর সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে …