Advertisements

অতিরিক্ত মাত্রায় কাজ পাগল আপনার সঙ্গী ? জেনে নিন কি করবেন

rupcare_upset-wife অতিরিক্ত মাত্রায় কাজ পাগল আপনার সঙ্গী ? জেনে নিন কি করবেন
সম্পর্কে টানাপোড়ন অনেক কারণেই আসতে পারে। অনেক সময় সঙ্গীর অতিরিক্ত কাজপাগল স্বভাবের কারণেও কিন্তু সম্পর্কে তিক্ততার সৃষ্টি হয়। কারণ কাজপাগল মানুষেরা নিজের সঙ্গীর প্রতি একটু কমই নজর দিয়ে থাকেন। তিনি যে এটি ইচ্ছে করে করছেন তা কিন্তু নয়। তার কাছে কাজটাই অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তবে এই কাজের প্রতি মায়া বেশির কারণেই অনেক বেশি অবহেলার স্বীকার হন তার সঙ্গী এবং সম্পর্কে না চাইতেই চলে আসে টানাপোড়ন। এই অবস্থা পরিবর্তন করতে কাজপাগল মানুষটি এবং তার সঙ্গী দুজনকেই একটু সচেতন হতে হবে একেঅপরের প্রতি। বুঝতে হবে একেঅপরকে, তবেই সম্পর্ক টিকে থাকবে।
১) প্রথমেই জেনে রাখুন সঙ্গীর কাজ করার ধরণ এবং সময় নিয়ে তার কাছে অতিরিক্ত ঘ্যান ঘ্যান করবেন না। আপনার সঙ্গী আর দশজন সাধারণ মানুষ থেকে আলাদা এই সত্যটি মেনে নিন। তাকে অতিরিক্ত বিরক্ত করলেই যে তিনি কাজ ছেড়ে আপনার দিকে নজর দেবেন এমনটি কিন্তু হবে না।
২) তার কাজের ধরণ বোঝার চেষ্টা করুন। তিনি যদি কর্পোরেট জগতে কাজ করেন তাহলে আপনি তার সাথে কর্মক্ষেত্রেই কিছুটা সময় ব্যয় করার চেষ্টা করুন। নিজেকে একটু হলেও মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করুন তার এই কাজপাগল মনোভাবের সাথে।
৩) সঙ্গীকে মনে করিয়ে দিন আপনার প্রয়োজনের কথা। ছুটির দিনে তাকে কাজ রাখতে নিষেধ করে দিন এবং তাকে এই বিষয়টি মেনে চলার জন্য বলুন। অন্যান্য দিন কাজের পেছনে পাগল থাকলে কিছু বলবেন না। এতে তিনি নিজে থেকেই ছুটির দিন আপনার জন্য সময় বের করে নেবেন।
৪) কখনোই তার কাজের সাথে নিজের গুরুত্বটা তুলনা করতে যাবেন না। এতে করে মন খারাপ করে হাল ছেড়ে দেবেন আপনি নিজেই। তার কাছে কাজ পছন্দের কিন্তু তাই বলে আপনি তার জীবনে গুরুত্ব রাখেন না তা কিন্তু নয় একেবারেই।
৫) তিনি কিছু করবেন তার জন্য আশা করে বসে থাকবেন না, বরং আপনিই সারপ্রাইজ দিন তাকে। প্ল্যান করুন তাকে নিয়ে। আপনাকে এতোটা করতে দেখে তিনিও উৎসাহী হবেন আপনার জন্য কিছু করার।
৬) কখনোই তার ঘাড়ে জোর করে দায়িত্ব চাপাতে যাবেন না। অনেকে মনে করেন সংসারের দায়িত্ব চাপিয়ে দিলে তিনিই সময় বের করে নেবেন। কিন্তু উল্টোটাই ঘটতে দেখা যায় বেশি। অনেক বেশি ভজঘট পাকিয়ে ফেলে বিরক্ত বোধ করবেন তিনি।
৭) তাকে বোঝার চেষ্টা করুন। অতিরিক্ত কাজ করতে তার যে খুব ভালো লাগছে তা মনে করার কোনই অর্থ নেই। তিনি হয়তো নিজের পরিবার এবং আপনার ভবিষ্যতের কথা ভেবেই কাজ করছেন।
সূত্র: প্রিয় লাইফ

Advertisements

Check Also

ভালোবাসার সম্পর্ক স্থায়ী না ভেঙে যাবে? জানা যাবে এই ৫ লক্ষণে!

সারা দিন ফোনে গল্প, একসঙ্গে থাকা, একে অপরের সঙ্গে ঝগড়া সাধারণত সম্পর্কে তো এমন হয়েই …