১০ মিনিটে পুষ্টিকর স্ন্যাক্স মুচমুচে মাশরুম ভাজা

food01-21032018-192422948


মাশরুম রান্না করা সহজ, আবার ঝামেলারও বটে। কারণ মাশরুম হচ্ছে সেই খাদ্য, যা রান্না করার ভুলে অখাদ্যে পরিণত হয় খুব সহজেই। মাশরুম দিয়ে স্যুপ বা চাইনিজ সবজি রান্নাটা নিশ্চয়ই জানেন? আজ তাই পাঠকদের জন্য হাজির করা হলো মাশরুম দিয়ে তৈরি সুস্বাদু একটি স্ন্যাক্স। ভিটামিন, প্রোটিন ও মিনারেলে ভরপুর মাশরুম পুষ্টির একটি দারুণ উৎস।
এই স্ন্যাক্সটি মূলত ওয়েস্টার মাশরুম দিয়েই মজা হবে। বাজারে বা সুপার শপে খুব সহজেই পাওয়া যায় ওয়েস্টার মাশরুম, দামেও খুব সস্তা। মাশরুমের সঙ্গে প্রয়োজন ঘরে থাকা ২/৩ টি উপাদান আর ১০ মিনিট সময়। চলুন, জেনে নিই বিস্তারিত রেসিপি।

যা লাগছে
ওয়েস্টার মাশরুম এক কাপ (বড় বড় টুকরো)
বুটের ডালের বেসন আধা কাপ
চালের গুঁড়ো আধা কাপ
লবণ স্বাদ অনুযায়ী
মরিচ, ধনিয়া ও জিরা গুঁড়ো এক চিমটি করে
ধনে পাতা ও কাঁচা মরিচ বাটা ১ চা চামচ
ডিম একটি
ভাজার জন্য তেল
প্রণালি
– মাশরুম ও তেল বাদে সমস্ত উপকরণ দিয়ে একসাথে মেখে নিন। প্রয়োজন হলে অল্প পানি যোগ করুন। পানির পরিমাপ এমন হবে যেন ব্যাটার মসৃণ ও ঘন হয়, ঠিক বেগুনির ব্যাটারের মতন।কিন্তু খুব বেশি ঘন না, এতে ভেতরে কাঁচা থেকে যাবে।
-এরপর ১ মিনিট রেখে দিন। ইতোমধ্যে চালের গুঁড়ো পানি টেনে নিয়ে ফুলে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে আরও পানি যোগ করে ব্যাটারের ঘনত্ব ঠিক করে নিন।
-মাশরুম ধুয়ে পানি ঝরিয়ে শুকিয়ে নিন, কড়াইতে তেল গরম হতে দিন।
– তেল মাঝারি আঁচে গরম করুন। এরপর ব্যাটারে মাশরুম ডুবিয়ে তেলে ছেড়ে দিন। একসঙ্গে খুব বেশি দেবেন না, এতে মুচমুচে ভাজা হবে না।
-৩/৪ মিনিট সময় নিয়ে সুন্দর করে ভেজে তুলুন। মাঝারি আঁচে সোনালি লাল রঙ ধরলেই বুঝবেন যে ভাজা হয়ে গেছে।
পরিবেশন করুন পছন্দের সসের সঙ্গে।

Check Also

মাংসকে হার মানাবে দারুণ সুস্বাদু ‘শাহী খাট্টা বেগুন’!

পোলাও, বিরিয়ানি বা খিচুড়ির সাথে মাংস না হলে চলেই না? আপনার সেই ধারণা বদলে দেবে …