কুমারীত্ব পরীক্ষা নিয়ে ভ্রান্ত ধারণা

সফল বিয়ের চাবিকাঠি কী। অনেককিছুই হতে পারে। তবে মেয়েদের কুমারীত্ব এর একটা প্রধান শর্ত বলে অনেকেই মনে করেন। কিন্তু সম্প্রতি পরিবর্তন ঘটেছে এই পুরনো ভাবনার।

একদল সমাজতাত্ত্বিকের মতে, বিয়ের আগের যৌন সম্পর্ক বিবাহিত জীবনে নাকি কোনও প্রভাবই ফেলে না।

আসলে যতই আমরা চাঁদে বা মহাকাশে পাড়ি জমাই না কেন বিয়ের ব্যাপারে মেয়েদের কুমারীত্ব নিয়ে প্রায় সব ছেলেই ভাবে। এমনকি ডাক্তারের কাছে গিয়ে স্ত্রীর কুমারীত্ব কীভাবে পরীক্ষা করবে, সে বিষয়ে জানতেও দ্বিধাগ্রস্ত হয় না, এমন প্রচুর ছেলেই পাওয়া যায়। যদিও চিকিৎসাবিজ্ঞানে এর বিশেষ কোনও পদ্ধতি নেই বললেই চলে।

যৌন বিশেষজ্ঞদের মতে, অনেক পুরুষই নতুন বিয়ের পর এসে ডাক্তারকে বলতে থাকেন, প্রথম সহবাসের পরেও স্ত্রীর রক্তপাত হয়নি। আসলে কুমারীত্বর সঙ্গে রক্তপাতের যোগ রয়েছে, এই ধারণাটাই আদতে ভ্রান্ত। বিশেষ করে সাইকেল চালানো বা সাঁতার কাটা যারা ছোট থেকেই করছেন, তাদের হাইমেন আগেই ছিঁড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাছাড়াও প্রথমবার সহবাসের পর রক্তপাত না হওয়ার জন্য কিছু শরীরগত কারণও দায়ী। কারও রক্তপাত হল না মানেই সে কুমারী নয়, এমনটা ভাবলে কিন্তু ভুল ভাবা হচ্ছে।

আসলে একজন মেয়ের কুমারীত্ব রয়েছে কিনা সে ব্যাপারে একমাত্র বলতে পারে তার প্রেগন্যান্সি হিস্ট্রি বা সে নিজে যদি এই ব্যাপারে কখনও মুখ খোলে। তাই স্ত্রী বা বান্ধবীর কুমারীত্ব নিয়ে অবিলম্বেই ছেলেদের ভাবনা বদলানো উচিৎ। বিয়ের পরবর্তী বেঝাপাড়ার উপরই বেশি মনোযোগ দেওয়া উচিত বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

Check Also

ফাগুন রেজার দাফন সম্পন্ন

ফাগুনের বাড়ি শেরপুর জেলা শহরে। তিনি তেজগাঁও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি সাংবাদিকতা করতেন। সর্বশেষ তিনি প্রিয়.কমে …