চিনি যেভাবে ত্বকের ক্ষতি করে

অতিরিক্ত মিষ্টি খাওয়ার অভ্যাস থাকলে বা মিষ্টি-জাতীয় খাবার একেবারেই এড়াতে না পারলে হয়ত ত্বকের ক্ষতি করছেন অজান্তেই।

ভারী যেকোনো খাবারের পর একটু মিষ্টি খেতে প্রায় সবারই ভালো লাগে। তবে মিষ্টি বা মিষ্টি খাবার বেশি মাত্রায় গ্রহণ করলে ত্বকের নানান ক্ষতি হয়।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এই বিষয়ের ওপর প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে চিনি কীভাবে ত্বকের ক্ষতি করে সে সম্পর্কে জানানো হল।

প্রদাহ বৃদ্ধি: চিকিৎসাবিজ্ঞানের সাধারণ তথ্য হল- মিষ্টি কিছু খেলেই শরীর ইন্সুলিন নিঃসরণ শুরু করে যা রক্তে শর্করার মাত্রা স্থির রাখে। তবে ইন্সুলিন নিঃসরণ শুরু হওয়া মাত্রই দেহে প্রদাহ তৈরি হয় যা থেকে ত্বক লালচে হয়ে যেতে পারে।

আগে থেকেই ব্রণ, একজিমা বা ফুসকুড়ির সমস্যা থাকলে তাতে সংক্রমণ দেখা দিতে পারে।

ব্রণ বাড়ায়: অতিরিক্ত চিনির কারণে ব্রণ হয়। প্রথমে ত্বকে প্রদাহ তৈরি হয়। সংক্রমণ রোধ করতে রক্তের শ্বেতকণিকা নিঃসরণ করে শরীর। যা ব্রণের অবস্থা আরও খারাপে দিকে নিয়ে যায়।

কোষকলায় আক্রমণ: মিষ্টি-জাতীয় খাবার শরীরে প্রবেশ করে কোষকলার প্রোটিনের সঙ্গে যুক্ত হয়। যাকে বলে গ্লাইকেশন। অর্থাৎ প্রোটিনের সঙ্গে চিনির বিক্রয়া ঘটে। এই প্রক্রিয়া থেকে তৈরি হয় এজিইএস বা অ্যাডভান্সড গ্লাইকেশন এন্ড প্রোডাক্টস। যা কোষকলায় আক্রমণ করে। ফলে বলিরেখা ও বয়সের বিরুদ্ধে কাজ করার ক্ষমতা ত্বকের কমে যায়।

অ্যালার্জি বাড়ায়: অ্যালার্জির সমস্যা থাকলে চিনি সেটার মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয়। তাই যাদের এই সমস্যা আছে তাদের চিনি এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। আর বিভিন্ন খাবার থেকে অ্যালার্জির সমস্যা থাকলে এই সমস্যা আরও বাড়িয়ে দেয়। তাই খাবার গ্রহণের আগেই সাবধান হতে হবে।

লালচে মুখ: টুকটুকে লালচে মুখ দেখে খুশি হওয়ার কিছু নেই। বিশ্বের ত্বক বিশেষজ্ঞরা এর কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন অতিরিক্ত চিনি গ্রহণের অভ্যাসকে। এই লালচে মুখকে বলা হচ্ছে ‘সুগারি ফেইস’। যা ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্য মোটেও ভালো নয়।

Check Also

যেভাবে সতেজ দেখাবে ক্লান্ত চেহারা

এখন পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও সমানতালে এগিয়ে চলছে। সারাদিনে চারপাশের কাজ সামলে নিজের জন্য আলাদা করে …