আর বেঁচে বাড়ি ফিরতে পারলেন না ফারজানা


কত জীবনপ্রদীপ অকালেই ঝরে যায়। ফারজানাও এমনই এক হতভাগ্য মেয়ে। পরিবারের সবাই মিলে চাঁদপুর থেকে সিলেটে গিয়েছিলেন খালাতো বোনের বিয়েতে। ফিরছিলেন উদয়ন এক্সপ্রেসে করে। লাকসাম নামার কথা ছিল তাদের। কিন্তু আর বেঁচে বাড়ি ফিরতে পারলেন না ফারজানা। বুধবার (১৩ নভেম্বর) চাঁদপুরে ফারজানাদের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় চারদিক ছেয়ে আছে শোকের কালো ছায়া। ফারজানা ট্রেন দুর্ঘটনায় মারা গেলেও তার পরিবারের অন্য সদস্যরা এখনও বেঁচে আছেন। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এরা হলেন-ফারজানার মা বেবী বেগম (৪০), ভাই হাসান বেপারী (২৮), নানি ফিরোজা বেগম (৭০), মামি শাহিদা বেগম (৪০), মামাতো বোন মিতু (১৭), ইলমা (৭) ও মামাতো ভাই জুবায়ের (৩)।

উল্লেখ্য, সোমবার রাত ৩টার দিকে কসবা উপজেলার মন্দবাগে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা ও সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ১৬ জন নিহত হন।

Check Also

স্টামফোর্ডের ছাত্রী রুম্পার মৃত্যুর ঘটনায় নতুন মোড়

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পা আত্নহত্যা করেন নি বরং তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে …