শবনমের ‘সব শেষ’

শবনম ফারিয়া। তিনি একাধারে একজন বাংলাদেশী অভিনেত্রী এবং মডেল। মূলত বাংলা নাটকে অভিনয় দিয়েই লাইমলাইটে আসেন। ২০১৮ সালে দেবী চলচ্চিত্র দিয়ে শুরু হয় তার বড় পর্দার পথচলা।

যে কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে বাচসাস পুরস্কার এবং শ্রেষ্ঠ নবীন অভিনয়শিল্পী বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারও ঝুলিতে পুরেছেন।

১৯৯০ সালের ৬ জানুয়ারি ঢাকায় জন্ম ফারিয়ার। তিনি ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি থেকে ইংরেজি বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। পৈতৃক নিবাস চাঁদপুরের মতলবে।

তার পিতা একজন ডাক্তার এবং মাতা গৃহিনী। ২০১৮ সালে এশিয়াটিক জে ডব্লিউটি’র ব্র্যান্ড ম্যানেজার হারুনুর রশীদ অপুর সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ফারিয়া।

সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রামে একটা বার্তা দেন শবনম। যা শুনে তাকে কিছুটা আবেগিই মনে হবে। তিনি লিখেছেন, ‘কংক্রিটের এই শহরে আমার জানালার একটুখানি সবুজ মনে করিয়ে দেয়, আমার একটা বারান্দা থাকার কথা ছিল, সেখানে দুইটা বেতের চেয়ার আর অনেক অনেক গাছ থাকার কথা ছিল।’

‘বারান্দায় ঢোকার পথে একটা উইন্ডচার্ম থাকার কথা, আর বারান্দার দেয়ালে টেরাকোটার হ্যাংগিং শোপিছ। সেখানে দুজন মানুষের ছুটির দিনে চা খাওয়ার কথা ছিল। কেউ কথা রাখে না। দিনের পর দিন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর। একদিন জানালার সামনে বসে ভাবি সব শেষ।’

Check Also

সেই অভিনেত্রী করলেন কী?

বলিউড অভিনেত্রী সানা খান। তবে কিছুদিন আগে শোবিজ জগত থেকে বিদায় নিয়েছেন। এরপর সম্প্রতি বিয়ের …