১৪০০ কিমি পাড়ি দিয়েও শেষ দেখা হলো না ঋষির মেয়ের!


বাবার মৃত্যুর সময় তাঁর পাশে সশরীরে থাকতে না পারা নিঃসন্দেহে যেকোনো সন্তানের জন্য অপরিসীম যন্ত্রণাদায়ক। তবে জন্মদাতার শেষ বিদায়ের সময় পাশে থেকে সেই ক্ষতে কিছুটা হলেও প্রলেপ দেওয়ার চেষ্টা থাকে সবার। কিন্তু সেটিও যখন সম্ভবপর হয় না, তখন ট্র্যাজেডি পায় পূর্ণতা! আর এমনটিই ঘটেছে বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা ঋষি কাপুরের মেয়ে রিধিমা কাপুরের ক্ষেত্রে। ১৪০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে শেষবারের মতো বাবাকে দেখতে যেতে যাত্রা শুরু করলেও শেষমেশ তা রূপ নিয়েছে বেদনাবিধুর কাব্যে!

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে জানা যায়, করোনাকালে লকডাউন চলছে গোটা ভারতে। তবে মানবিক কারণেই ১৪০০ কিলোমিটার দূরে থাকা রিধিমাকে মুম্বাইয়ে গিয়ে বাবার শেষকৃত্যে অংশগ্রহণের অনুমতি দিয়েছিল দিল্লি পুলিশ। গাড়িতে করে মুম্বাইয়ে ফেরার একটি ছবি তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে শেয়ার করেন। সেইসঙ্গে লেখেন, ‘বাড়ি ফিরছি, মা। মুম্বাইয়ের পথে…।’ পাশাপাশি হৃদয়ের একটি ইমোজিও যোগ করেন তিনি।

তবে শেষ পর্যন্ত পৌঁছাতে দেরি হয়ে যায়। রিধিমাকে ছাড়াই অনুষ্ঠিত হয় ঋষি কাপুরের শেষকৃত্য। কিংবদন্তি অভিনেতার নিকটাত্মীয়দের মধ্যে কেবল রিধিমা শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি।

এর আগে বাবার চিরবিদায়ে কষ্ট প্রকাশ করে আবেগঘন নোট লেখেন রিধিমা। বাবাকে ‘শক্তিশালী যোদ্ধা’ উল্লেখ করে তাঁকে প্রতিদিন মিস করবেন বলে জানান তিনি।

‘বাবা, আমি তোমাকে ভালোবাসি ও সব সময় ভালোবাসব। আমার শক্তিশালী যোদ্ধা, তোমার আত্মা শান্তিতে থাকুক, আমি তোমাকে প্রতিদিন মিস করব, তোমার ফেসটাইম কল মিস করব প্রতিদিন,’ বাবার সঙ্গে একটি সেলফি ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ্যে এনে লেখেন রিধিমা।

‘আশা করেছিলাম, তোমাকে শেষ বিদায় জানাতে আমি সেখানে থাকতে পারব! যত দিন আমাদের আবার দেখা না হচ্ছে, পাপা, আমি তোমাকে ভালোবাসব—তোমার আদরের মেয়ে,’ পোস্টের শেষাংশে লেখেন তিনি।

দুই বছর ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করে গতকাল বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে মারা যান ঋষি কাপুর। দক্ষিণ মুম্বাইয়ের চন্দনবতী শ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হয়।

শ্মশান চত্বরে ঋষি কাপুরের স্ত্রী নীতু সিং কাপুর, ছেলে রণবীর কাপুর, ভাই রণধীর ও রাজীব, কারিনা কাপুর খান ও সাইফ আলি খান, অভিষেক বচ্চন, রণবীরের প্রেমিকা আলিয়া ভাট ও অনিল আম্বানিসহ ঋষি কাপুরের পরিবারের অন্যান্য সদস্য, নিকটজন ও সহকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় লকডাউনে ভারত সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সবার হাতে গ্লাভস ও মুখে মাস্ক ছিল। ছিল পুলিশি নিরাপত্তা।

Check Also

সেই অভিনেত্রী করলেন কী?

বলিউড অভিনেত্রী সানা খান। তবে কিছুদিন আগে শোবিজ জগত থেকে বিদায় নিয়েছেন। এরপর সম্প্রতি বিয়ের …