ঘর বাঁধার স্বপ্ন পূরণ হলো না, দুর্ঘটনায় যুগলের মৃত্যু

মাস কয়েক পরেই বিয়ের পরিকল্পনা ছিল দু’জনের। কিন্তু এক দুর্ঘটনায় সব শেষ হয়ে গেল। ভারতের কলকাতার নিউটাউনে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হলো তরুণ-তরুণীর।

স্কুটিতে চড়ে তারা দু’জন সল্টলেকের দিক থেকে চীনার পার্কের দিকে যাচ্ছিলেন। ওই সময় বিশ্ববাংলা গেটের নীচে দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর অবস্থায় বিধাননগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে দু’জনকেই মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

জানা গেছে, মৃত যুবকের নাম দীপায়ন মুখার্জি। পেশায় তিনি আইটি কর্মী। বরাহনগর স্পোটিং ক্লাবের ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন তিনি। তরুণী মেধা পাল আইটি কর্মী।

তরুণের বাড়ি বরাহনগর ও তরুণীর বাড়ি বিরাটিতে। তরুণী বেঙ্গালুরুতে কর্মরত ছিলেন বলে তার পরিবার থেকে জানানো হয়েছে। লকডাউনের কারণে বাড়িতে এসেছিলেন তিনি। এর পর বাড়ি থেকেই কাজ করছিলেন।

পুলিশ বলছে, সল্টলেকের দিক থেকে চীনার পার্কের দিকে যাওয়ার সময় বিশ্ববাংলা গেটের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ অ্যাম্বুলেন্সে করে বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায় দু’জনকে। কিন্তু তারে কাউকেই বাঁচানো যায়নি।

পুলিশ আরো জানিয়েছে, স্কুটির পেছনে একটি লরি আসছিল। সেই লরি পেছন থেকে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। দুজন ছিটকে পড়ে যান রাস্তায়। লরির খোঁজ চালাচ্ছে নিউটাউন থানার পুলিশ।

নিহতদের পরিবার বলছে, সামনের বছর দুজনের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। প্রতি শনিবার দুজনে ঘুরতে বের হতেন। বাইরে খাওয়া দাওয়া করতেন তারা একসঙ্গে। সে অনুসারে গতকাল দুজন বেরিয়েছিলেন। খাওয়া দাওয়া সেরে বাড়ি ফেরার সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়েন দুজন।

Check Also

করোনা ভাইরাস: টাকা, মোবাইল স্ক্রিন এবং স্টিলে ২৮ দিন পর্যন্ত থাকতে পারে, বলছে গবেষণা

করোনাভাইরাস ২৮ দিন পর্যন্ত ব্যাংক নোট, মোবাইল ফোনের স্ক্রিন এবং স্টেইনলেস স্টিলের মতো পৃষ্ঠগুলোতে থাকতে …