ব্ল্যাক হেডস্ দূর করার পদ্ধতি

|আরফিন আলী তন্বী|

ব্ল্যাকহেডস্ হলো ব্রণের প্রাথমিক পর্যায়। আমাদের ত্বকের থাকে অসংখ্য লোমকূপ। অধিক সময় মুখ অপরিচ্ছন্ন থাকার কারণে ঐ লোমকূপ গুলো থেকে অতিরিক্ত তেল বের হয়। এর সাথে ধুলা-ময়লা যোগ হয়ে সেই লোমকূপ গুলোকে বন্ধ করে দেয়। এভাবেই তৈরী হয় ব্ল্যাক হেডস্। যদিও ব্রণে হাত দেয়া ঠিক নয়। কিন্তু যারা এ ধরণের ব্ল্যাক হেডস্ এর যন্ত্রনায় অতিষ্ট, প্রাথমিক পর্যায়ে এগুলো দূর না করলে পরবর্তীতে মুখে স্থায়ী দাগ পরে যেতে পারে। তবে যেভাবেই ব্ল্যাক হেডস্ দূর করুন না কেন, পদ্ধতিটি হতে হবে সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত।

আসুন দেখি সেরকমই একটি পদ্ধতি।

• প্রথমেই সাবান, ফেসওয়াশ বা কোন এন্টিসেপ্টিক দিয়ে আপনার মুখ হাত ভাল করে ধুয়ে, শুকিয়ে নিন।

• একটুকরো টিস্যূ নিন, এতে আপনার আঙুল পিচ্ছিল হবে না, আর হতে ময়লাও লাগবে না।

• এরপর ব্ল্যাক হেডস্ এর জায়গাটি আপনার তর্জনী আঙুল দিয়ে সনাক্ত করুন।

• টিস্যু পেপার সহ দুই আঙুল দিয়ে চাপ দিন। যদি এটি ব্ল্যাক হেডস্ হয় তবে এর ছিদ্র দিয়ে পুজ বের হয়ে আসবে।


• যদি না বের হয় তাহলে চাপাচাপি না করে যতোটুকু বের হয় ঐ অবস্থায়ই রেখে দিতে হবে। পরবর্তীতে পেকে গেলে সেটি বের করতে হবে।
• এবার আরেকটি টিস্যু দিয়ে সম্পূর্ণ পুজটুকু বের করে নিতে হবে। এবর আপনার মুখ সাবান বা ফেসওয়াশ কিংবা এন্টিসেপ্টিক দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এখানে উল্লেখ্য যে ব্ল্যাক হেডস্ দূর করার আগে মুখে একটু গরম পানির ভাপ নিয়ে নিলে, ব্ল্যাক হেডস্ এর মুখগুলো তুলনামূলক বড় হয়, তখন এগুলো থেকে পুজ বের করতে সহজ হয়।

Check Also

ডেন্টিস্ট ছাড়াই দাঁতের পাথর দূর করার সবচেয়ে কার্যকরী উপায়

দাঁত নিয়ে নানা রকম সমস্যায় ভুগে থাকেন অনেকেই। দাঁতব্যথা, হলদেটেভাব, কালো দাগ, দাঁতে পাথর ইত্যাদি …