আন্তর্জাতিক রেকর্ড ভাঙার পথে "চারছক্কা হইহই"

|রূপ-কেয়ার ডেস্ক|

rupcare_flash mob t20

‘চার ছক্কা হইহই’ এর জনপ্রিয়তা ও সাফল্য দেশের সীমানা পেরিয়ে ঠাঁই করে নিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমেও। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের থীম সং এই বাংলা গানে মাতোয়ারা গোটা বিশ্ব। এমনকি আন্তর্জাতিক কিছু সংবাদমাধ্যমের মতে, বিশ্বকাপ ফুটবলকে সামনে রেখে প্রকাশিত জেনিফার লোপেজ-পিট বুলের গানকেও ছাড়িয়ে যাবে ‘চার ছক্কা হইহই’!

ভারতের স্বনামধন্য সংবাদমাধ্যম ‘জি নিউজ’ এ প্রসঙ্গে প্রকাশ করেছে একটি প্রতিবেদন। সেখানে শিরোনামে বলা হয়েছে, ‘বাংলা’ ওয়ার্ল্ড টি২০ গান জে লো-পিটবুলের ফিফা ২০১৪ কে ছাড়িয়ে যেতে প্রস্তুত’। এদিকে, অস্ট্রেলিয়ার জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ‘নিউজডটকম’ শিরোনাম করেছে, ‘চার ছক্কা হই হই শুনুন’।

নিউজডটকম উল্লেখ করেছে, বাংলা ও ইংরেজি ভাষার মিশ্রণে তৈরি গানটির কথায় কিছু উত্সাহব্যঞ্জক বাক্য রয়েছে। যেমন-‘সিক্সটিন ক্রিকেট ক্রেজি নেশনস, হাউ এক্সাইটিং’, ‘বম্ব্যাসটিক রকিং’ ইত্যাদি। মুগ্ধতাজাগানিয়া গানটি জেনিফার লোপেজ, পিটবুল ও ক্লদিয়া লেইতের গাওয়া এবারের ফিফা বিশ্বকাপের গানকে টেক্কা দিতে পারে। অসাধারণ বিট ও লয়ের কারণে দ্রুতই জনপ্রিয় হয়েছে গানটিকে। গানটির ভিডিওক্লিপস ইউটিউবে যেভাবে ঝড় তুলেছে, তাতে ২০১০ ফুটবল বিশ্বকাপে গাওয়া শাকিরার ‘ওয়াকা ওয়াকা’কেও ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

গানটি মুক্তি পাওয়ার পরই দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হয়েছে ‘ফ্ল্যাশমব’। নিউজডটকমের ধারণা, গানটি যেভাবে জনপ্রিয় হচ্ছে, তাতে লন্ডন, মুম্বাই, কেপটাউন ও সিডনির রাস্তায় চার ছক্কার তালে তরুণদের আকস্মিক নৃত্য এখন কেবল সময়ের ব্যাপার।

সব মিলিয়ে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত টি২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উৎসবের পারদ ‘চার ছক্কা হইহই’ এর কারণে বেড়ে গেছে কয়েক মাত্রা। দারুন উচ্ছ্বাসে ভরপুর এই গান দেশের সঙ্গীতকেও পৌছে দিয়েছে আন্তর্জাতিক উচ্চতায়।

তথ্যসূত্র: মিডিয়াটাইমস২৪

Check Also

অভিনয় জগতে আসতে চান না শাহরুখ পুত্র

শাহরুখ খানের বড় ছেলে আরিয়ান খান। স্নাতক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসের ইউনিভার্সিটি অব সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া …