গরমে সুস্থ্য থাকতে যে ৫ ধরনের খাবার এড়িয়ে চলবেন

|রূপ-কেয়ার ডেস্ক|

সারা দেশে তীব্র গরম পড়েছে এবং আগামী কয়েকদিন তা আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময়ে বাড়তি সতর্ক না হলে নানা রোগব্যাধি ও শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার জোর সম্ভাবনা রয়েছে। তবে পাঁচধরনের খাবার গ্রহণে সাবধানতা এ সময়ের ঝুঁকি থেকে রক্ষা করতে পারে আপনাকে।

১. অতিরিক্ত মসলাদার খাবার
অতিরিক্ত মসলা শরীরের এটি বিপাক ক্রিয়া বাড়িয়ে দেয়। ফলে দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। এতে গরমের সময় সমস্যা তৈরি হতে পারে। এ কারণে রান্নায় কিছুটা কম মসলা দিতে হবে অথবা অতিরিক্ত মসলাদার খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

২. আমিষ
গ্রীষ্মকাল অতিরিক্ত মাংসের খাবার, মাছ ইত্যাদি খাওয়ার উপযুক্ত সময় নয়। এমনকি মুরগির মাংস কিংবা সমুদ্রের প্রাণীসমৃদ্ধ খাবারও গ্রীষ্মকালে শরীরের বিপত্তি ঘটাতে পারে। এসব খাবার শরীর থেকে অতিরিক্ত ঘাম নিঃস্বরণ করে। এগুলো গ্রীষ্মকালে হজমের সমস্যা করে। এগুলো খাওয়ার ফলে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

৩. তৈলাক্ত খাবার ও জাংক ফুড
তেলে ভাজা খাবার গ্রীষ্মকালে শরীরের নানা সমস্যা করে। এ ছাড়াও বার্গার ও নানা ধরনের ফাস্ট ফুড গরমের সময় এড়িয়ে চলতে হবে।

৪. চা ও কফি
শরীরের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেওয়ার মতো পানীয় হচ্ছে চা ও কফি। এসব পানীয়তে ব্যবহৃত চিনিও শরীরের পানি কমিয়ে দিতে সাহায্য করে। এ কারণে গরমের সময় এসব পানীয় এড়িয়ে চলতে হবে।

৫. কৃত্রিম সস
খাবারের সঙ্গে পরিবেশন করা কৃত্রিমভাবে সংরক্ষিত সসও এড়িয়ে চলতে হবে। বিশেষ করে যেসব সসে পনির রয়েছে সেগুলো এ সময় সবচেয়ে ক্ষতিকর হবে। এতে ৩৫০ ক্যালরি রয়েছে, যা গরমে শরীরে অস্বাচ্ছন্দ্য আনবে। তবে কৃত্রিম এসব সসের বদলে প্রাকৃতিক টাটকা সস খাওয়া যেতে পারে।

তথ্যসূত্র: কালেরকণ্ঠ

Check Also

প্রতিদিন আমলকি খেলে কী হয়?

স্বাস্থ্যের উন্নতি থেকে শুরু করে মুখের ব্রণের মতো সমস্যা দূর করে তাই একে উপকারিতার স্টোরহাউজ …