Advertisements

শখের জুতা দীর্ঘদিন নতুন রাখতে যা করবেন

|রূপ-কেয়ার ডেস্ক|

rupcare_shoe-care শখের জুতা দীর্ঘদিন নতুন রাখতে যা করবেন

নিত্যদিন ব্যবহারের জুতোগুলোকে না হয় বাদই দিলাম, এমনিতেও তো শখ করে কেনা হয় কত হরেক রকমের জুতো। হয়তো কোনো উৎসব উপলক্ষে পোশাকের সাথে মিলিয়ে কিনেছেন, বিশেষ দিন ছাড়া পরা হয় না। এমন পরিস্থিতিতে কী হয়? ঘরে পড়ে থেকে থেকে যত্ন হয়ে যায় সাধের জুতো। আবার আপনার প্রতিদিন ব্যবহারের জুতোগুলোকেও যদি একটু যত্ন করতে পারেন, তাহলে কিন্তু টিকবে বহুকাল। দেখতে থাকবে নতুনের মত আর আপনার পয়সাও বাঁচবে। আসুন দেখি, শখের জুতোকে দীর্ঘস্থায়ী করার কলাকৌশল।

Advertisements

-জুতো কখনো খোলা ফেলে রাখবেন না। বিশেষ করে শৌখিন জুতো। শু আলমারি ব্যবহার করুন, নিদেন পক্ষে জুতোর বাক্সে ঢুকিয়ে রাখুন।
-স্যাঁতসেঁতে , ভেজা স্থানে জুতো রাখবেন না।
-বাইরে যাবার সময় নয় বরং বাইরে থেকে ফিরে জুতো পরিষ্কার করুন।
-চামড়ার জুতোয় রাতে ক্রিম মাখিয়ে রাখুন, সকালে ব্রাশ দিয়ে সামান্য ঘষলেই জুতা চকচকে হয়ে উঠবে।
-কোলাপুরি চপ্পল বা এ ধরনের স্যান্ডেল বিবর্ণ হয়ে পড়লে এক টুকরো কাপড় ডিজেলে ভিজিয়ে সেটা দিয়ে স্যান্ডেল ঘষুন। স্যান্ডেল নতুনের মতো চকচকে হয়ে উঠবে।
-জুতো ভিজে গেলে অনেকেই ভেজা জুতো সরাসরি আগুনের তাপে বা রোদে শুকাতে দেন। এই কাজটি করবেন না, এতে জুতোর আকার নষ্ট হয়ে যায়। প্রথমে ময়লা বা কাদা পরিষ্কার করে মুছে এরপর জুতোর ভেতরে পুরনো খবরের কাগজ ভালো ভাবে গুঁজে দিন। এই কাগজ পানি শুষে নেবে এবং আকার ঠিক রাখতে সাহায্য করবে। মোটামুটি শুকিয়ে যাবার পর স্যাঁতস্যাঁতে ভাব কমাতে জুতো কিছুক্ষণ রোদে রেখে দিন। পুরোপুরি শুকিয়ে গেলে জুতার গায়ে ভ্যাসলিন মাখুন। কয়েক ঘণ্টা রেখে শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। এরপরও যদি সাদা সাদা দাগ থাকে তাহলে নরম কাপড় ভিনেগারে ভিজিয়ে জুতো মুছে ফেলুন, দাগ থাকবে না।
-কারো কারো জুতা ব্যবহারের পর প্রচণ্ড দুর্গন্ধ হয়। এক্ষেত্রে জুতার ভেতর খবরের কাগজ গুঁজে সারা রাত রেখে দিন। সকালে উঠে দেখবেন গন্ধ আর নেই! ভেতরে রেখে দিতে পারেন বেকিং সোডাও। দ্রুত গন্ধ চলে যাবে।
-সৌখিন জুতো কখনো ভেজা কাপড় দিয়ে মুছবেন না। খুব জেদি দাগ হলে গ্লাস ক্লিনার ব্যবহার করুন।
-জুতো মেরামত করতে কখনো সুপার গ্লু ব্যবহার করতে যাবেন না যেন!

তথ্যসূত্র: প্রিয় লাইফ

Advertisements

Check Also

তেল চিটচিটে রান্নাঘর পরিষ্কারের সহজ উপায়

রান্নাঘর পরিষ্কারের দিকে সবচেয়ে বেশি মনোযোগী হওয়া উচিত। কারণ, বাড়ির এই অংশেই সবার জন্য খাবার …