নতুন প্রেমে পরেছেন? সফল করতে রইলো ৭টি পরামর্শ

সদ্য কারো প্রেমে পড়েছেন? আপনি নিশ্চিতভাবেই এই সম্পর্ককে স্থায়িত্ব দিতে চাইছেন। কিন্তু কীভাবে এগোবেন বুঝতে পারছেন না। প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে আপনি নিশ্চয়ই বিচক্ষণ থাকতে চান এবং ভুল করে এমন কিছু করতে চান না যা অপরজনকে ভয় বা কষ্ট পাইয়ে দেয়। এখানে বিশেষজ্ঞের সাতটি পরামর্শ দেওয়া হলো। এগুলো আপনাদের মধ্যে ‘হ্যাঁ’ এবং ‘না’ সংক্রান্ত বিষয়গুলো সহজ করে দেবে যা নতুন সম্পর্ককে বাঁধবে স্থায়িত্বের বন্ধনে।

১. প্রথমেই ভালো বন্ধু হন : যেকোনো সম্পর্কের ভিত্তি গড়তে হলে শক্ত ভিত করতে হবে। একে অপরকে ভালো করে জানা ও বোঝা, অনুভূতির আদান-প্রদান করা এবং চিন্তা-চেতনায় অনুভব করা ইত্যাদির উন্মেষ ঘটানো দরকার। দুজনের মধ্যে কোনো প্রকার দ্বিধা-দ্বন্দ্ব আসতে দেওয়া যাবে না।

২. মাঝেমধ্যে দেখা করুন, তবে কদাচিৎ নয় : সম্পর্ক চলমান থাকলে সব সময় মন চায় তার সঙ্গে সময় কাটাতে। কিন্তু মনে রাখবেন, প্রথম প্রথম দুজনের মধ্যে কিছুটা ব্যবধান রাখা জরুরি। বুঝতে দেওয়া না যে, আপনি অতিমাত্রায় আগ্রহী বা অস্থির। তা ছাড়া দূরত্ব থাকলে সম্পর্ক রোমাঞ্চকর হয়ে ওঠে।

৩. আঠার মতো আটকে রাখবেন না : একটি বা দুটি ডেটিং দিয়েই মনে করবেন না যে, প্রেমিক বা প্রেমিকা আপনার হয়ে গেছে। স্বাস্থ্যকর সম্পর্ক বজায় রাখতে হলে দুজনের জন্য দুজনকে জায়গা ছাড়তে হবে।

৪. গ্রহণ করে নিন : আপনি কারো প্রেমে পড়ার অর্থ হলো, এমন একজন মানুষকে ভালোবেসেছেন যিনি আপনার মতো নন। কাজেই আপনার স্বপ্নের মতো নারী বা পুরুষ তিনি হবেন না। তাই তাকে বদলে ফেলার পরিকল্পনা না করে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করুন। দুজনের দিক থেকেই এটি সত্য। অন্যের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়াটাই নিয়ম।

৫. ধীরে ধীরে এগিয়ে যান : সম্পর্ককে এগিয়ে নিতে এবং পরিপূর্ণতা দিতে যৌনতা অনবদ্য ভূমিকা রাখে। এ কাজটি অতি দ্রুত করা থেকে বিরত থাকতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। নতুন সম্পর্কের ক্ষেত্রে নিজেদের জানা ও বোঝার পর উভয়ের সম্মতিতে এক সময় শারীরিক সম্পর্ক হয়ে যায়। কিন্তু সে জন্য জবরদস্তি ভালো কিছু বয়ে আনে না। এতে বরং সম্পর্ক ভেঙে যেতে পারে।

৬. পুরনো সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে ভুলে যান : ভুলে যান অর্থাৎ তার সঙ্গে সকল সম্পর্ক ত্যাগ করুন। ভুলেও ওই মুখো হবেন না। নতুনজনকে আগলে ধরুন। সাবেক প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে বন্ধুত্ব রাখাও বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।

৭. স্বাভাবিক জীবনকে উপভোগ করুন : নতুন সম্পর্কে জড়ালে বন্ধু-বান্ধবকে ভুলে যাবেন না। এই সম্পর্কের বাইরে পরিবার-পরিজনদের নিয়ে আপনার যে সামাজিক জীবন রয়েছে, তাকে আঁকড়ে ধরে রাখুন আগের মতোই। বরং নতুন এই মানুষটিই আপনার পুরনো স্থানে নতুনভাবে যোগ দেবেন। আপনার অন্য জীবন নতুন মানুষটিকে গ্রহণ করে নেবে। তাই প্রেমিক বা প্রেমিকাকে আপনার আসল ঠিকানা ও পরিচয় সম্পর্কে অবগত করুন।

সূত্র: কালেরকণ্ঠ

Check Also

পরকীয়ার শিকার হচ্ছেন না তো আপনি?

আপনি ভাবছেন আপনার জীবনসঙ্গী খুবই ভালো মানুষ, তিনি আপনার সঙ্গে খুবই ভালো আচরণ করেন, তার …