ব্যস্ততার মাঝেও মানসিক শান্তি আনার ৭টি উপায়

|রূপ-কেয়ার ডেস্ক|

rupcare_busy girl

ব্যস্ততার কারণে আমাদের মানসিক শান্তি দিনে দিনে দূরে চলে যাচ্ছে। আর এ সমস্যা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে টিভি, ফোন ও ইন্টারনেটের মতো নানা বিষয়। এসব ঝামেলার মধ্যে থেকে মানসিক অবস্থা স্বাভাবিক করে শান্তি বজায় রাখার সাতটি উপায় থাকছে এ লেখায়। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হাফিংটন পোস্ট।

১. বড় করে শ্বাস নিন
কোনো একটি চাপের মুহূর্তে মানুষের স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া হলো ঘন ঘন শ্বাস নেওয়া ও ছাড়া। তবে এটি তারা না বুঝেই করে। একটি ঝামেলাপূর্ণ কাজ শেষ হওয়ার পর মানুষ দীর্ঘশ্বাস নেয়। একে বলা হয় ‘হাফ ছেড়ে বাঁচা।’ আর এ দীর্ঘশ্বাস ছাড়ার বিষয়টি মানসিক চাপ কমাতে কাজ করে। কয়েকবার দীর্ঘশ্বাস ফেললে তা সবচেয়ে ভালো কাজ করবে।

২. হাতের লেখা, বাগান ও সঙ্গীতচর্চা করুন
হাতের লেখা ও ক্যালিগ্রাফির চর্চা একটি সৃজনশীল অনুশীলন হিসেবে পরিচিত। এতে একের পর এক অক্ষর সাজিয়ে সুন্দরভাবে লেখার অনুশীলন করা হয়। আর এজন্য প্রতি মুহূর্তে সচেতনতার চর্চাও হয়। এ ধরনের আরও সৃজনশীল অনুশীলনের মধ্যে রয়েছে বাগান তৈরি ও সঙ্গীতচর্চা।

তবে এসব কাজ করতে হবে একমনে। এ ধরনের সৃজনশীল কাজ করার সময় যদি আপনি কম্পিউটার, ইন্টারনেট কিংবা টিভি চালু রাখেন তাহলে এসব উদ্দেশ্য পূরণ হবে না বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

৩. থালাবাসন ধোয়াধুয়ি করুন
থালাবাসন ধোয়ার মতো কাজ অনেকেরই খুব বিরক্তিকর মনে হতে পারে। কিন্তু এ বিষয়টি আপনার অনুভূতি ঝালিয়ে নেওয়ার জন্য দারুণ একটি সুযোগ হতে পারে। আপনার হাতের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া পানি কিংবা আঙুলের মাঝে সাবানের বুদবুদ অনুভব করুন।

৪. সকালের সর্বোত্তম ব্যবহার
আমরা অনেকেই সকাল বেলায় কয়েকটি নির্দিষ্ট ও অতি প্রয়োজনীয় কাজ করতে অভ্যস্ত। এর বাইরে কোনো কাজ করতে আমরা আগ্রহী হই না। ফলে সকালের সুন্দর সম্ভাবনা নষ্ট হয়। কিন্তু আমরা যদি সকালটি এভাবে নষ্ট না করে তার সম্ভাবনা কাজে লাগাই তাহলে তা অনেক উপকারে আসবে। এজন্য সকালে একটি সময় বের করে মেডিটেশন বা ধ্যান করা যেতে পারে। এ সময় সারাদিনের কার্যক্রম বিষয়ে ঠাণ্ডা মাথায় পরিকল্পনা করা যেতে পারে।

৫. আপনার পা মাটিতে রাখুন
কাজের সময় উপভোগ করা কিংবা মনোযোগ ফিরিয়ে আনার একটি অন্যতম উপায় হতে পারে মেঝেতে পা রাখা। ধরুন একটি দীর্ঘ মিটিংয়ে আপনার মনোযোগ বিক্ষিপ্ত হয়ে গেছে। এ অবস্থায় মনোযোগ ফিরিয়ে আনার জন্য মেঝেতে আপনার দুই পা রেখে তা অনুভব করার চেষ্টা করুন। কয়েক মুহূর্ত এ কাজ করলেই তা আপনার দেহ ও মনের উন্নতিতে সহায়ক হবে।

৬. হাঁটা
কাজের বিরতিতে মানসিক শান্তি ও মনোযোগ ফিরিয়ে আনার জন্য একটু হেঁটে নেওয়া খুবই কার্যকর হতে পারে। একটু সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা কিংবা খোলা বাতাসে হেঁটে নিন। এ সময় অনুভব করুন আপনার পায়ের প্রতিটি পদক্ষেপ, বাতাসের তাপমাত্রা ও আপনার ত্বকে লাগা বহমান বায়ুর অনুভূতি।

৭. অতিরিক্ত ১৫ মিনিটের একটি কাজ
মানসিক প্রশান্তির জন্য প্রতিদিন ১৫ মিনিটের একটি কাজ করুন। এ সময়ে ফোন, টিভি কিংবা সঙ্গীত বন্ধ রাখতে হবে। এ সময় নিরবতা বজায় রাখতে হবে এবং নিজের নিঃশ্বাসের দিকে মনযোগ দিতে হবে। আর মানসিকতা নিবদ্ধ রাখতে হবে নিঃশ্বাসের মতো শারীরিক অনুভূতির দিকে।

তথ্যসূত্র: কালেরকণ্ঠ

Check Also

চিনি থেকে পিঁপড়া তাড়ানোর দারুণ উপায়

চিনি রাখা নিয়ে অনেকেই ঝামেলায় পড়েন। যেমন পাত্রেই রাখেন না কেন পিঁপড়া এসে হাজির হয়। …