যে ভুলগুলো করা উচিত না ভালোবাসার খাতিরে!

amitumi_love

মানুষ যখন প্রেমে পড়ে তখন ভালোবাসার মানুষটির জন্য নিজের সবটুকু ঢেলে দিতে ইচ্ছা করে। আর তাই ভালোবাসার মানুষটিকে আকাশের চাঁদটাও এনে দেয়ার প্রতিজ্ঞা করেন ভালোবাসার আতিশয্যে। কিন্তু ভালোবাসার খাতিরে কি সত্যিই এতটা আবেগপ্রবণ হওয়া উচিত? নাহ, কখনোই না। কারণ একটি স্থায়ী সম্পর্কে যাওয়ার আগে ভালোবাসার সম্পর্কটা খুবই ঠুনকো। আর তাই ভালোবাসার খাতিরে কিছু কাজ করা একদমই ঠিক না। জেনে নিন ভালোবাসার খাতিরে কোন ভুলগুলো একদমই করা উচিত নয় সে ব্যাপারে।

ব্যক্তিগত বা পারিবারিক দুর্বলতা জানানো

অনেকেরই ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কিছু দূর্লবতা থাকে। কিন্তু এই দূর্বলতার কথা ভালোবাসার মানুষটিকে জানানোর কোনো প্রয়োজন নেই। প্রেমিক প্রেমিকারা গল্প করার সময় এমন অনেক ব্যক্তিগত বিষয় বলে ফেলে যা পরবর্তীতে সমস্যা সৃষ্টি করে। ব্যক্তিগত সব দূর্বলতার কথা জানিয়ে দিলে আপনার ভালোবাসার মানুষটিই সুযোগ বুঝে আপনার দূর্লবতার সুযোগ নিতে পারে। তাই ভালোবাসার মানুষটিকে ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সব দূর্বলতা না জানানোই ভালো।

ট্যাটু করা

প্রেমিকের নাম বা প্রেমিকার নামে অনেকেই শরীরে ট্যাটু করে ফেলেন। প্রেমিকা/প্রেমিককে মুগ্ধ করার জন্য বা চমকে যাওয়ার জন্যই এই ভুলটি করেন অনেকেই। কিন্তু এমন ঘটনাও অহরহই ঘটছে যে স্থায়ী ট্যাটু করানোর পর সেই সম্পর্কটি ভেঙে গিয়েছে। ফলে ট্যাটু নিয়ে পড়তে হয় বিপদে। আর তাই এই ধরণের ভুল একেবারেই করা উচিত না।

আত্মহত্যার চেষ্টা করা

প্রেমিক/প্রেমিকার সাথে রাগারাগি করে অনেকেই আত্নহত্যার মতো ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। অন্যের জন্য নিজেকে শেষ করাটা একদমই বোকামি। কারণ পৃথিবীটা অনেক সুন্দর। আপনার ভবিষ্যতে কী আছে আপনি জানেন না। তাই আপনার সুন্দর ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে বর্তমানের কষ্টদায়ক সম্পর্ক থেকে সরে আসুন।

বন্ধুদের অবহেলা করা

প্রেমিক/প্রেমিকার জন্য অধিকাংশ মানুষই নিজের বন্ধুদেরকে অবহেলা করেন। বন্ধুদেরকে অবহেলা করার ফলে ধীরে ধীরে বন্ধুদের সাথে দূরত্ব তৈরি হয়ে যায়। ফলে একটা সময়ে নিয়ের কষ্টগুলো শেয়ার করার মানুষ থাকে না আপনার। তাই ভালোবাসার জন্য বন্ধুদেরকে অবহেলা করা একদমই উচিত না।

নিজের শখ বিসর্জন দেয়া

অনেকেই গান করেন, ছবি আকেন, গিটার বাজান কিংবা নাচ শিখেন শখের বশে। কিন্তু প্রেম করার পর সঙ্গীর যদি এগুলো পছন্দ না হয় তাহলে নানান রকমের বিধি নিষেধ চাপানো হয় এগুলোর উপরে। আর তাই আপনিও বিসর্জন দেন নিজের শখগুলোকে। ভালোবাসার জন্য নিজের শখগুলোকে কখনই বিসর্জন দেয়া উচিত না। কারণ নিজের শখ বিসর্জন দিলে ধীরে ধীরে নিজেকেই হারিয়ে ফেলবেন আপনি।

সুত্র : প্রিয় লাইফ

Check Also

পরকীয়ার শিকার হচ্ছেন না তো আপনি?

আপনি ভাবছেন আপনার জীবনসঙ্গী খুবই ভালো মানুষ, তিনি আপনার সঙ্গে খুবই ভালো আচরণ করেন, তার …