Advertisements

এবারের ঈদ-পূজায় ফ্যাশনের হালচাল

amitumi_eid-puja এবারের ঈদ-পূজায় ফ্যাশনের হালচাল

দোর গোড়ায় দাঁড়িয়ে পূজা ও ঈদ, এদেশের সবচাইতে বড় দুটি ধর্মীয় উৎসব। বলাই বাহুল্য যে ধুমিয়ে চলছে কেনাকাটা। যদিও আজকাল বৃষ্টি বাদলের অত্যাচারে ঘর থেকে যেন বের হওয়াই দায়, তবু মার্কেটে গেলেই চোখে পড়বে উপচে পড়া ভিড়। আপনিও নিশ্চয়ই কেনাকাটা নিয়েই ব্যস্ত? তাহলে আসুন, চট করে চোখ বুলিয়ে জেনে নিন এবারের ঈদ ও পূজায় ফ্যাশনেত হালচাল, কী চলছে আর কী নিয়ে ব্যস্ত তরুনেরা।

বিগত কয়েক বছর যাবতই উৎসবগুলোতে ফ্যাশন ট্রেন্ডর বৃত্তাকার ধারা চলছে। এক উৎসবে একটা হারিয়ে গেলে পরের উৎসবে ফিরে আসছে আবার।

তবে ফ্যাশন ট্রেন্ডের ধারাবাহিকতায় যোগ হচ্ছে ভিন্নতা এবং ফিউশন। এবং এর অনেকটাই আবার স্যাটেলাইট চ্যানেলের কল্যাণে। তবে আজকাল অন্ধ অনুকরণ কিছুটা হলেও পালিয়েছে, গর্জাস লুকের জন্য সবাই খুঁজে ফিরছেন কিঞ্চিৎ হলেও স্বাতন্ত্র্য। ফ্যাশন হাউজগুলোতে তাই ভিন্নধর্মী পোশাকের কদরটাই বেশী।

এবার ঈদ ও পূজায় সুতিটাই চলছে বেশী। তবে সুতির পাশাপাশি ঐতিহ্যগতভাবে প্রশংসিত সিল্ক, মসলিন, এন্ডি সিল্ক, জয়শ্রী, এন্ডি কটন, জর্জেট, শিফনও চলছে বেশ। পোশাকে ভ্যালু অ্যাড করতে কারচুপি, এমব্রয়ডারি, স্ক্রিন প্রিন্ট, বস্নক, স্টিচিং ইত্যাদি কারুকাজের মাধ্যমে সমৃদ্ধ করা হয়েছে পোশাকের জমিন। প্যাটার্ন বৈচিত্র্য এসেছে পাশ্চাত্য এবং দেশীয় ট্রেন্ডের আদলে। ফিউশন ধর্মী কাজও দারুণ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

Advertisements

মার্কেট ঘুরে জানা যায়, রোজার ঈদের মতো এবারও ঈদে পালাজ্জো বা ডিভাইডারের সঙ্গে লম্বা কামিজ পরবে তরুণীরা। আর ঘাড় থেকে পায়ের পাতা পর্যন্ত লম্বা কামিজ বা ‘ফ্লোর টাচ’ এবারের ঈদেও তরুণীদের চাহিদায় থাকবে এগিয়ে। তবে সেমিলং ও ফ্রক আকৃতির কামিজের ট্রেন্ডও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। মূলত এ কলিদার কামিজগুলো তৈরি করা হয়েছে ছয় ছাঁটে, তাই খুব বেশী মোটা মানুষের না পরাই ভালো। পাশাপাশি যারা লং কুর্তা পরতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন তাদের জন্য অ্যাজটেক অথবা অ্যানিমেল প্রিন্ট থেকে ফ্লোরাল প্রিন্টের কাপড়ও থাকবে পছন্দের তালিকায়। প্লিটেড, ড্রেপিং, অসম কাট, বিভিন্ন ধরনের ফ্লেয়ার ও লেয়ার কাটের মাধ্যমে ফতুয়া বা কুর্তা, পনচো, টিউনিক ও ড্রেস এবারও ঈদ ফ্যাশনে পরবেন কেউ কেউ।

এখনকার তরুণরা ঈদের দিনের বেশিরভাগ সময় পাঞ্জাবি পরে কাটান। তাই তারা পাঞ্জাবি কেনার সময় আরামকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন। এখন আর ছেলেমেয়ে ভেদে কোনো রঙ নেই। নীল, ম্যাজেন্ডা, গাঢ় বেগুনি এমনকি গোলাপি রঙের পাঞ্জাবিও কিনছেন অনেকে। ভিসকোস ও সুতির পাশাপাশি কাতানের পাঞ্জাবির চল রয়েছে। এক রঙের পাঞ্জাবি যেমন চলছে, আবার অনেকে চেকের পাঞ্জাবিও কিনছেন। পাঞ্জাবির ঝুল হাঁটু পর্যন্ত দেখা যাবে এবারও।

তরুণীরা সাধারণ শাড়িতেও গর্জাস ব্লাউজ ব্যবহার করতে পারেন। একটু শাইনি এবং কারুকাজ করা ডিপ নেকের ব্লাউজ আপনাকে দেবে বাড়তি এলিগ্যান্ট লুক। এছাড়া ভারি কাজের অাঁচল আর পাড়সমৃদ্ধ শাড়ি ঈদে আপনাকে করে তুলতে পারে অনন্যা! পরিবেশ, পার্টির ধরন, আপনার ব্যক্তিত্ব এবং রুচির ওপর নির্ভর করেই তাই কিনে বা বানিয়ে ফেলতে পারেন আপনার ঈদ পোশাক।

সবাইকে অগ্রিম শুভেচ্ছা।

সূত্র: প্রিয় লাইফ

Advertisements

Check Also

অভিজাত এলাকায় বিচরণ ডিজে নেহার, চলত উদ্যাম নৃত্য

ছবি: ভিডিও থেকে সংগৃহীত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে অতিরিক্ত মদপান করিয়ে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় …