বিয়েতে রাজি হয়েছেন অভিভাবকের পছন্দে ? অবশ্যই মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলো

rupcare_couple
অনেক অভিভাবকই নিজের সন্তানের জন্য জীবনসঙ্গী খোঁজার কাজটি করে থাকেন। কেউ কেউ নিজের সন্তানকে নিজের পছন্দে জীবনসঙ্গী খুঁজে নিতে বললেও, অনেক বাবা-মাই চান তাদের সন্তান পরিবারের পছন্দ অনুযায়ী বিয়ে করুক। এতে করে সমস্যায় পড়ে যান অনেক সন্তান। নিজের পছন্দের ব্যাপারটির সাথে অভিভাবকের পছন্দ মেলাতে না পেরেও বাধ্য হয়ে মেনে নিতে হয় অনেককে।
কিন্তু এতে বৈবাহিক সম্পর্ক সুখের হয় না। নষ্ট হয় দুটি জীবন এবং সেই সাথে দুটি পরিবারের স্বপ্ন। তারপরও অভিভাবক তো সন্তানের খারাপ চান না, তাই তাদের ইচ্ছাকেও ফেলে দেয়া যায় না। জানতে চান এই সময়ে কী করবেন? চলুন তবে জেনে নিন অভিভাবকের পছন্দে বিয়েতে রাজি হলে কোন কোন বিষয় মাথায় রাখতে হবে।
নিজের জীবনের ব্যাপারে একেবারে সব কম্প্রোমাইজ করে ফেলবেন না
কিছুটা তো কম্প্রোমাইজ করতেই হয় পারিবারিক পছন্দের ক্ষেত্রে। কিন্তু বাবা-মা পছন্দ করেছে বলে একেবারে সবকিছু কম্প্রোমাইজ করে তাকেই আপনার বিয়ে করতে হবে এমনটি করতে যাবেন না। নিজের পছন্দ বাবা-মাকে বলুন। আপনি নিজের জীবনসঙ্গীর মাঝে কোন জিনিসটি খোঁজেন তা জানান। নিজের জীবনের সবকিছু কম্প্রোমাইজ করে ফেলবেন না।
অভিভাবকের পছন্দ হলেও নিজের পছন্দের মানুষটি খুঁজে নিন এর মাঝেই
অভিভাবক নিজের পছন্দ আজকাল একেবারে আপনার ওপর চাপিয়ে দেন না। আপনাকে অনেক সময়েই সুযোগ দিয়ে থাকেন নিজের পছন্দের মানুষটিকে খুঁজে নেয়ার। তারা নিজেরাও যেমন আপনার জন্য পারফেক্ট মানুষ খুঁজে থাকেন আপনি নিজেও তাদের পছন্দের মধ্য থেকেই নিজের পছন্দের বৈশিষ্ট্যের মানুষ খুঁজে নিন।
আপনার পছন্দ না হলে জোর করে বিয়ে করবেন না
শুধু বাবা-মায়ের বাধ্য সন্তান হিসেবে অভিভাবক আপনার পছন্দের একেবারেই উল্টো ধরনের মানুষের সাথে আপনার বিয়ে ঠিক করে ফেললে সেটাতে জোর করে মত দিয়ে দেবেন না। মুখ ফুটে কথা বলার মতো সাহস রাখুন। কারণ সেটা আপনার জীবন। বাবা মা কখনোই আপনার খারাপ চান না। তারা আপনার ব্যাপার বুঝবেন।
নতুন সঙ্গীর অতীত সম্পর্কে খুব বেশি জানতে চাইবেন না
একজন মানুষের অতীত থাকতেই পারে। আপনার অভিভাবক আপনার জন্য যাকে পছন্দ করেছেন তারও অতীত থাকতে পারে। কিন্তু তা যদি তিনি নিজে থেকে না বলতে চান তবে আপনার তা জানার ইচ্ছা প্রকাশ না করাই ভালো। হয়তো অতীত জেনে আপনি তাকে কোনওদিনই আপন করে নিতে পারবেন না। তাই নতুন জীবনে অতীতের ছায়া না আনতে চাওয়াই উত্তম।
ভুল কোনো কাজ করতে যাবেন না
অনেকে অভিভাবকের পছন্দে মতামত দিয়েও বিয়ে ভাঙার জন্য নানা ধরনের কাজ করে থাকেন। এই ধরনের ভুল করবেন না। এতে আপনার এবং আপনার পরিবারেরই বদনাম হবে। যদি না পারেন তো মতামতই দেবেন না। কিন্তু বিয়েতে মত দিয়ে তা ভাঙার মতো ভুল কাজ করতে যাবেন না।
সূত্র: প্রিয় লাইফ

Check Also

যে কথা কখনোই স্ত্রীকে বলবেন না

দাম্পত্য সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য স্বামী-স্ত্রীর মধ্যেই ভালোবাসা, সহমর্মিতা, আন্তরিকতা এবং আত্মত্যাগ অনেক জরুরি। এর …