স্বাস্থ্যকর ও ভালো ঘুমের জন্য "পারফেক্ট" বালিশ নির্বাচন করবেন যেভাবে

rupcare_pillow
সুস্থ থাকার জন্য প্রয়োজন পরিমিত ঘুম। আর আরামদায়ক ঘুম অনেকটাই নির্ভর করে বিছানা, বালিশ এবং ঘুমানোর পরিবেশের উপর। বিশেষ করে বালিশ ‘পারফেক্ট’ না হলে অনেকেই ঘুমাতে পারেন না ঠিক মতো। সারা রাত এপাশ ওপাশ ফিরে কাটিয়ে দিতে হয় তখন। তাই বালিশটা হওয়া চাই একদম ‘পারফেক্ট’। জেনে নিন ভালো ঘুমের জন্য সঠিক বালিশ নির্বাচন প্রসঙ্গে কিছু তথ্য।
আকৃতি
বালিশের আকৃতি আপনার পছন্দ মতই নির্বাচন করতে পারবেন। তবে খুব বেশি ছোট বালিশে আপনার ঘুম ভালো হবে না। মিডিয়াম, লার্জ, স্ট্যান্ডার্ড, কিং, কুইন ইত্যাদি নানা সাইজের বালিশ থেকে আপনার পছন্দসই একটি বালিশ বেছে নিতে পারেন।
বালিশের উচ্চতা
অতিরিক্ত উঁচু কিংবা একদম নিচু বালিশ ঘুমের জন্য এবং স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বালিশের উচ্চতা হওয়া চাই মাঝারী। বালিশের উচ্চতা এমন হওয়া উচিত যেন কাঁধ বা ঘাড় বাঁকিয়ে শুতে না হয়। আপনার যদি পাশ ফিরে শোয়ার অভ্যাস থাকে তাহলে বিছানায় শোয়ার পরে কাঁধের সাথে গলার উচ্চতা যতটুকু ততটুকুই হওয়া উচিত বালিশের উচ্চতা। আর যদি আপনি চিৎ হয়ে শুতে পছন্দ করেন তাহলে আপনার ঘাড় এবং বালিশের উচ্চতা সমান্তরালে থাকা উচিত।
বালিশের উপকরণ
বালিশের উপরকরণ প্রাকৃতিক হওয়াটাই ভালো। ফোমের বালিশ বেশ নরম হলেও ঘুমানোর জন্য আরামদায়ক না। এধরণের বালিশের স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়। তাই তুলার তৈরি বালিশই ভালো ঘুম এবং স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।
বালিশের কভার
বালিশের কভার খুব বেশি খসখসে হওয়া উচিত না। বিশেষ করে কারুকাজ করা চাদরের সাথে যেই বালিশের কভার গুলো দেয়া থাকে সেগুলো রাতে ঘুমানোর সময় ব্যবহার করা উচিত না। বালিশের কভার হিসেবে নরম সুতি কাপড়ের কিংবা সার্টিন কাপড়ের কভারই সবচাইতে ভালো।
সূত্র: প্রিয় লাইফ

Check Also

চিনি থেকে পিঁপড়া তাড়ানোর দারুণ উপায়

চিনি রাখা নিয়ে অনেকেই ঝামেলায় পড়েন। যেমন পাত্রেই রাখেন না কেন পিঁপড়া এসে হাজির হয়। …