বিয়ের কিছুদিন পর খুব দ্রুতই বদলে যায় যে ১৫টি বিষয়

amitumi_realizations after marriage

বিয়ের আগ দিয়ে বিয়ের পরের জীবনটাকে স্বপ্নময় মনে হয়। বিয়ের পর সেই স্বপ্ন আরো বেশি রঙিন হয়ে ওঠে। কিন্তু অদ্ভুত হলেও সত্য যে, নতুন দাম্পত্য জীবন কিছু সময় এগিয়ে গেলে আর আগের মতো থাকে না।বিশেষজ্ঞের মতে, বেশ কয়েকটি বিষয় খুব দ্রুত বদলে যাবে। সেই ১৫টি বিষয়ের কথা জেনে নিন।

১. প্রথমে মনে হবে স্বামী আর সন্তানই আপনার জীবনের সবকিছু হবে। কিন্তু সময় না যেতেই বুঝবেন, আপনার নিজেরও আলাদা পরিচয়ের দরকার রয়েছে।

২. বিয়ের আগে প্রেমিকের সঙ্গে নানা বিষয় নিয়ে মোটেও স্বার্থপরতা অনুভব করবেন না আপনি। বিয়ের পরও নিঃস্বার্থভাবে জীবনটা কাটাতে চাইবেন। কিন্তু কিছু দিন পেরোতেই অনুভব করবেন, কিছুটা স্বার্থপরতা আপনাকে সুখ ও শান্তি এনে দিতে পারে।

৩. অনেকেই মনে করেন লাজুক আর ভালো মেয়েরা বিয়ের পর সেক্স নিয়ে কথা বলেন না। কিন্তু মোটেও তা নয়। এটি সব নারী-পুরুষের চাহিদা। সব মেয়েই তার স্বামীর সঙ্গে এ নিয়ে আলোচনা করতে পারেন।

৪. বিয়ের আগে সব মেয়েরই মনে হয় যে, স্বামীর সব কথা শুনবেন। কিন্তু দিন গড়ালে এ ভুল ভাঙবে। তখন স্বামীর অনেক কথাতেই বিরোধীতা করতে হয় এবং নিজের প্রয়োজনেই তা করা জরুরি হয়ে ওঠে।

৫. অনেক নারী বিয়ের পর তার অতি আবেগ প্রকাশে অস্বস্তিবোধ করেন। সত্যিকার আবেগ প্রকাশ কখনো নাটকীয় হয়ে ওঠে না। কিন্তু এক সময় সব নারীই তীব্র আবেগ প্রকাশ করেন।

৬. বড়রা বলেন, বিয়ের প্রথম বছরটা নাকি নানা বিষয়ে সাবধানে থাকতে হয় মেয়েদের। এর একটি হলো, বিয়ের পর নোংরা কাপড় মানুষের সামনে ধুয়ে নাড়তে নেই। কিন্তু এগুলো এতদিন ধরে মানতে মন চাইবে না। তা ছাড়া অন্যান্য সমস্যাতেও কোনো অস্বস্তিবোধ করবেন না। সমস্যা নিয়ে স্বামীর সঙ্গে আলোচনা করবেন।

৭. বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে ঘুমাতে যাওয়ার বিষয়টিই অন্যরকম। মনে হবে, সেখানে গেলে মন খারাপ আর থাকবে না। কিন্তু খুব দ্রুতই বুঝতে পারবেন, মন-মেজাজ সব খারাপ থাকতে পারে এবং বিছানায় গেলে তা আরো বাড়তেও পারে।

৮. এক সময় মনে হবে, বরের সঙ্গে কখনোই বিতর্ক করবেন না। কিন্তু মতের মিল না হলে তর্কে জড়িয়ে পড়তে বেশি দিন লাগবে না।

৯. সংসারের প্রধান উপার্জনকারী হবেন স্বামী- এমনটাই মনে করেন অনেকে। কিন্তু আপনি কর্মজীবী হলে বা বিয়ের পর কিছু করলে বুঝতে পারবেন, আপনিও এই হাল ধরতে সক্ষম।

১০. বিয়ের আগে মনে হয়, স্বামী যা পছন্দ করবে আপনি তেমনটাই হতে চান। কিন্তু বিয়ের পর মনে হবে, আপনি যেমন তেমনটাই যেন ভালোবাসেন স্বামী।

১১. দুজনের মধ্যে কোনো গোপনীয়তা না থাকাটাই ভালো বলে মনে করেন অনেকে। আপনিও হয়তো ভেবে রাখবেন যে, স্বামীর কাছ থেকে কিছুই লুকাবেন না। কিন্তু এক সময় দেখবেন, আপনারও ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রয়েছে এবং অনেক কিছু লুকানোর আছে।

১২. মনে হয়, সম্পর্কে যেমনই হোক না কেন, সন্তান চলে আসলেই সব ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু এ ভুল দ্রুত ভাঙবে। মূলত দুজনের সম্পর্কটাই আগের বিষয়। এটি ঠিক না থাকলে বরং সন্তান আসা আরো বড় বিপদের হতে পারে।

১৩. স্বামীর সঙ্গে নতুন যে ঘরে যাচ্ছেন, মন হবে, তার পরিবারই আপনার পরিবার। নতুন সব নিয়ম, মানুষ এবং পছন্দ-অপছন্দের সঙ্গে মানিয়ে নেবেন আপনি। কিন্তু অতি দ্রুত মনে হবে, তাদের সব পছন্দ কখনো আপনি মেনে নিতে পারবেন না।

১৪. টাকা-পয়সার সঠিক ব্যবহার স্বামী করতে পারেন বলেই ধারণা করবেন প্রথমে। কিন্তু ভুল ভাঙবে আপনার। যদি কর্মজীবী নারী হয়ে থাকেন, তাহলে এ কাজটি আপনিও সুন্দরভাবে করতে পারবেন।

১৫. বিয়ের আগে ভাববেন যে, বিয়ের পর স্বামী বাইরে কাজ করবেন এবং আপরি ঘর সামলাবেন। কিন্তু সবই এলোমেলো হয়ে যাবে। হয়তো আপনিও কোনো কাজে জড়িয়ে পড়বেন। অথবা আপনার স্বামীকেও ঘরের অনেক কিছু দেখতে হবে পারে। অথবা দুজন মিলেই সব কাজই করছেন।

সূত্র: কালেরকণ্ঠ

Check Also

পরকীয়ার শিকার হচ্ছেন না তো আপনি?

আপনি ভাবছেন আপনার জীবনসঙ্গী খুবই ভালো মানুষ, তিনি আপনার সঙ্গে খুবই ভালো আচরণ করেন, তার …