মুখের অবাঞ্ছিত লোম দূর করতে কার্যকরী ২ টি পদ্ধতি

amitumi_facial hair removal

মুখের ছোটো ছোটো লোম অনেক সময় বিব্রতকর সমস্যার সৃষ্টি করে। নারী পুরুষ অনেকেই বিশেষ করে নারীরা নাকে, গালে, ঠোঁটের উপরে, কানের পাশে ইত্যাদি স্থানে অবাঞ্ছিত লোমের কারণে অনেকসময় লজ্জাকর পরিস্থিতি পড়ে যান। ওয়াক্সিং এবং থ্রেডিং করে অনেকে এই ধরনের অবাঞ্ছিত লোম দূর করেন ঠিকই কিন্তু তা অনেক বেশি যন্ত্রণাদায়ক। এর থেকে ঘরোয়া পদ্ধতিতে খুব সহজেই দূর করে ফেলুন না মুখের ত্বকের এই অবাঞ্ছিত লোম। চলুন তাহলে শিখে নেয়া যাক পদ্ধতি দুটো।

১) জিলেটিনের ব্যবহার

জিলেটিনের মাস্কের মাধ্যমে খুব সহজেই মুখের ত্বকের অবাঞ্ছিত লোম দূর করা সম্ভব হয়। এটি ওয়াক্সিংয়ের মতোই তবে এতে ব্যথা লাগে না বা লাগলেও অনেক কম যা আপনি অনায়েসেই সহ্য করে নিতে পারবেন।

– ১ টেবিল চামচ জিলেটিন, ২-৩ টেবিল চামচ দুধ, ৩-৪ ফোঁটা লেবুর রস একটি বাটিতে নিয়ে ওভেনে ১৫-২০ সেকেন্ড হিট দিয়ে নিন।
– মিশ্রণটি ভালো করে গুলে একটি ব্রাশ দিয়ে পুরো মুখে লাগান (চোখের চারপাশ, ভ্রু এবং হেয়ার লাইন বাদ দিয়ে)
– পুরোপুরি শুকিয়ে যেতে দিন মিশ্রণটি। এরপর ধরে ধীরে তুলে ফেলুন। দেখবেন একেবারেই সহজে তুলে ফেলতে পারছেন মুখের অবাঞ্ছিত লোম।

২) ওটমিল মাস্ক

ওটমিল একটু গুঁড়ো ধরণের হয় বলে এটি ত্বকের উপরের মরা কোষ সহ মুখের ত্বকের অবাঞ্ছিত লোমও তুলতে বেশ কার্যকরী।

– ১ চা চামচ ওটমিল, ১ চা চামচ তাজা লেবুর রস ও ১ টেবিল চামচ মধু ভালো করে মিশিয়ে নিন।
– এই মাস্কটি মুখের ত্বকের অবাঞ্ছিত লোমের উপরে ভালো করে ঘষে নিন। তবে অবশ্যই আলতো ঘষা দেবেন।
– প্রায় ১৫ মিনিট ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ঘষে নিন এই মাস্কটি। এরপর কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।
– ভালো ফলাফল পেতে সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করুন।

সুত্রঃ প্রিয় লাইফ

Check Also

ফর্সা ত্বক চান? মেনে চলুন এই ৩ নিয়ম

আবহাওয়ার খামখেয়ালি প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকেও। এই রোদ, বৃষ্টি, ধুলোবালি- সবকিছুর সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে …