আস্ত আমড়ার মজাদর মিষ্টি আচার

amitumi_amrar achar

মৌসুমি ফলের আচারে খাবার হোক আনন্দময়।
রেসিপি দিয়েছেন বীথি জগলুল।

উপকরণ

আমড়া ২০টি (১ কেজির মতো হবে)। সরিষার তেল দেড় কাপ। ভিনিগার আধা কাপ। আস্ত পাঁচফোড়ন ১ চা-চামচ। তেজপাতা ১টি। সরিষাবাটা ২ টেবিল-চামচ। আদাবাটা দেড় টেবিল-চামচ। রসুনবাটা ১ টেবিল-চামচ। কাঁচামরিচ-বাটা ১ টেবিল-চামচ। হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ। চিনি ২ কাপ। লবণ ১ চা-চামচ (আমড়ার টক বুঝে, বেশিও লাগতে পারে)। খাবার রং ১ ফোঁটা (হলুদ, লাল অথবা সবুজ)। ভাজা ধনে/পাঁচফোড়ন গুঁড়া ১ চা-চামচ।

পদ্ধতি

আমড়া ছিলে, ধুয়ে প্রথমে কাঁটাচামচ দিয়ে খুব ভালোভাবে কেঁচে নিয়ে, আবার বটি বা ছুরি দিয়ে দানা পর্যন্ত কয়েকটা চিড় দিয়ে নিন।

অল্প ভিনিগার দিয়ে কাঁচামরিচ ও সরিষা বেটে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে আস্ত পাঁচফোড়ন ও তেজপাতা ফোঁড়ন দিয়ে বাটা মসলাগুলো ও হলুদগুঁড়াসহ কষাতে হবে। তারপর আমড়া দিয়ে আরও কয়েক মিনিট কষিয়ে ভিনিগার দিয়ে মিশিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন।

মাঝারি আঁচে রান্না করুন। আমড়া সিদ্ধ হয়ে গেলে চিনি ও খাবার রং দিন।

এবার হাঁড়িটি রুটির তাওয়ার ওপর বসিয়ে মৃদু আঁচে রান্না করুন, যেন আমড়ার ভেতরে চিনি ও সব মসলা ঠিকমতো ঢুকে।

তেল ছেড়ে আসলে নামিয়ে ভাজা মসলা মিশিয়ে নিন। নামিয়ে ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করুন।

* টিপস: যদি এই আচার বেশিদিন সংরক্ষণ করতে চান তবে তেলের পরিমাণ বাড়িয়ে দেবেন এবং বেশ কয়েকদিন রোদে রাখবেন।

আমড়া যতোই কেঁচে নিন না কেনো, কিছুদিন না গেলে আমড়ার দানা পর্যন্ত মিষ্টি ও মসলা ঢুকবে না। তেল-মসলায় কিছুদিন থাকলে সেটা খেতে বেশি মজা। আর বেশি মিষ্টি খেতে না চাইলে, কিছু শুকনামরিচ কেটে দিয়ে দিতে পারেন।

Check Also

মজাদার রসুন ভর্তা তৈরির রেসিপি

গরম ভাতে সুস্বাদু ভর্তার কোনো পদ হলে আর কথা নেই! গপাগপ কখন যে সাবাড় হয়ে …