ঈদে গরুর মাংসের ভিন্নধর্মী ৫টি মজাদার খাবার

amitumi_5 beef items for eid

উৎসবে নানারকম খাবার না হলে কি চলে? তার ওপর যদি হয় কোরবানির ঈদ! নানা রকম মাংসের আইটেম তো প্লেটে থাকাই চাই। আজ আপনাদের জন্য থাকছে গরুর মাংসের মজাদার ৫টি ভিন্নধর্মী খাবারের রেসিপি।

আনারস বিফ মালাই কোপ্তা

উপকরণ :
গরুর মাংসের কিমা আধা কেজি, আদা-রসুন-পিঁয়াজ-জিরা বাটা ১ চামচ করে, গরম মসলার গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনিয়া পাতা ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণ মতো।
প্রস্তুত প্রণালি :
প্রথমে মাংসের কিমার সঙ্গে বাটা সব মসলা গরম মসলার গুঁড়া, ধনিয়া পাতা ও লবণ দিয়ে এক সঙ্গে ভালো করে মাখিয়ে গোল গোল করে বলের মতো করে নিন, তাহলে হয়ে যাবে কোপ্তা। অন্য একটি পাত্রে তেল গরম করে তার মধ্যে গরম মসলাগুলো ছেড়ে দিন, এবার একটি একটি করে সব দিয়ে কষান, মসলা কষানো হয়ে গেলে তাতে আধা কাপ পানি দিন এবং ফুটতে দিন, এবার তাতে একটি একটি করে কোপ্তা ছেড়ে দিয়ে আস্তে নাড়া দিন, যাতে কোপ্তাগুলো না ভেঙে যায়। অন্য একটি পাত্রে আনারস টুকরা করে কেটে ভাপ দিয়ে নিন, যাতে আনারস একটু নরম হয়ে যায় এবার কোপ্তাতে দিয়ে দিন এবার এতে চিনি ও লবণ দিয়ে তৈরি করে ফেলুন আনারস বিফ মালাই কোপ্তা, যা আপনি ভাত-পোলাও-রুটি যে কোনো জিনিস দিয়ে পরিবেশন করতে পারেন।

চাপড়ি কাবাব

উপকরণ :
গরুর মাংসের কিমা ১ কেজি, ডিম ৪টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা-রসুন কুচি ২ টেবিল চামচ, তেল আধা কাপ, টমেটো কুচি-আধা কাপ, কাঁচামরিচ কুচি ২ টেবিল চামচ, আদা ভাঙা জিরা/ধনিয়া-১ চা চামচ করে, লাল মরিচ ক্রাশ ১ চা চামচ, ধনিয়া পাতা কুচি ১ কাপ, টমেটো সাজানের জন্য ২টি, বেশন ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণ মতো।
প্রস্তুত প্রণালি :
প্রথমে মাংসের কিমার মধ্যে সব মসলা মাখিয়ে কিছুক্ষণ রাখুন ৩ বার আর একটি কড়াইতে ২টি ডিম ঝুরা করে ভেজে নিয়ে মাংসের সঙ্গে মাখান এরপর বেশনকে একটু কড়াইতে ভেজে এটাকেও মাংসের সঙ্গে মিশান, সঙ্গে বাকি ডিম কাঁচা অবস্থায় মাখান, যাতে এটা বাইংডিগের কাজে লাগে, এবার পাতলা করে এর মাঝখানে গোল করে কাটা টমেটো দিয়ে অল্প তেল দিয়ে কাবাবটা ভেজে পরিবেশন করুন।

বিফ ভেজিটেবল পুডিং

পুডিং ডো :
ময়দা ২ কাপ, আদা-রসুন-পেঁয়াজ-জিরা বাটা ১২৫ গ্রাম, লবণ পরিমাণমতো বেকিং পাউডার ১ চা চামচ।
পুডিংয়ের মিশ্রণ :
গরুর মাংস হাড় ছাড়া ২ কাপ, গাজর ১টি, পেঁয়াজ মোটা করে কাটা পরিমাণ মতো, মাসরুম ১০টি, অরেপান আধা কেজি, বেজেল আধা কেজি, গোলমরিচ গুঁড়া আধা কেজি, চিকেন কিউব ১টি, সয়া সস ২ চামচ, লবণ সামান্য।
প্রস্তুত প্রণালি :
প্রথমে একটি পাত্রে ময়দা, মাখন বেকিং, পাউডার, লবণ দিয়ে একটা ডো তৈরি করুন, যেটা রুটি বা পরটার ডোর মতো হতে এবার একটি গোল বাটিতে ময়দা ডো রুটির মতো গোল করে বানান এটা আধা ইঞ্চি মোটা হবে এবং সেটা কে বাটির মধ্যে ভরে বাটির আকারে গড়ে নিন। এরপর বাটিকে আরেক বার এলুমুনিয়াম ফয়েল দিয়ে মুড়িয়ে শক্ত করে সিল করে পজিংয়ের মতো করে নিচে পানি দিয়ে একটি পাত্রের ওপর বসিয়ে দিন, ৪-৫ ঘণ্টা লাগবে এই পুডিং হতে। এরপর এতে ব্রন সস তৈরি করে ঢেলে দিন। ব্রন সস তৈরি করতে লাগবে মাখন ১ চামচ, ময়দা ১ চামচ, সয়াসস ১ চামচ। মাখনে ময়দা ভেজে একটু পানি বা চিকেন টক দিয়ে পাতলা করুন এবং মাখা মাখা হয়ে এলে সয়াসস দিয়ে নামায়ে পুজির ওপর দিয়ে পরিবেশন করুন।

বিফ টাঢক রোস্ট উইথ কোকোনাট মিল্ক

উপকরণ :
গরুর জিহবা ১ কেজি, আদা বাটা ১ কেজি, রসুন কাটা ১ কাপ, জিহবা বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, কোকনাট মিল্ক ১ টিন, এলাচ-দারুচিনি ২টি করে, তেজপাতা ২টি, তেল ১ কাপ, লবণ পরিমাণ মতো, বাদাম বাটা ১ চা চামচ, টক দই আধা কাপ, টমেটো সস ১ চামচ, চিনি সস ১ চা চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি :
প্রথমে গরম পানিতে দিয়ে জিহ্বা বা টাঢক ভালো করে পরিষ্কার করে নিয়ে এটিকে মাংসের মতো টুকরা করে নিন তার পর এটাকে কিছুক্ষণ মেগনেট করে রেখে দিতে হবে। তারপর ভালো করে কষিয়ে এতে পানি দিয়ে সিদ্ধ করতে দিন, সিদ্ধ হয়ে গেলে এবার নারিকেলের দুধ দিয়ে আর একবার কষানো তেল উপরে উঠে এলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

এগপ্লান্ট বিফ সালাদ

উপকরণ :
বেগুন ৪ কেজি, মাংস লম্বা করে কাটা আধা কেজি, টমেটো কুচি আধা কাপ, কেপসিকাম ২ টেবিল চামচ, শসা কুচি আধা কাপ, কাঁচামরিচ কুচি ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, সরিষা তেল আধা কাপ, সরিষা তেল আধা কাপ, সরিষা বাটা আধা কাপ, ধনিয়া পাতা ২ চা চামচ, পুদিনা পাতা ২ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, হলুদ গুঁড়া সামান্য, আদা-রসুন বাটা আধা চা চামচ, চিনি আধা চা চামচ, লেবুর রস ২ চা চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি :
প্রথমে বেগুন ধুয়ে মাঝখান থেকে কেটে দুই টুকরা করে নিন, এরপর এর মাঝখান থেকে পাল্প বের করে নিন, তার পর পুরো বেগুনকে লবণ, হলুদ ও বাটা মমলা মেখে তেলের মধ্যে একটু ভেজে নিন, এরপর অন্য একটি পাত্রে সালাদের সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে বেগুনের মধ্যে ভরে পরিবেশন করেন এগপ্লান্ট বিফ সালাদ।

Check Also

মজাদার রসুন ভর্তা তৈরির রেসিপি

গরম ভাতে সুস্বাদু ভর্তার কোনো পদ হলে আর কথা নেই! গপাগপ কখন যে সাবাড় হয়ে …