এ্যাসিডিটি থেকে মুক্তি পেতে

amitumi_acidity solution

গ্যাসের সমস্যা বা অ্যাসিডিটিতে জীবনে একবারও ভুগতে হয়নি এমন মানুষ পাওয়া দুষ্কর। তবে এই বিরক্তিকর সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া কঠিন নয়।

ঘরোয়া উপায়ে এই সমস্যা উপশম করা সম্ভব।

খাবার হজম করার জন্য পাকস্থলীতে কিছু অ্যাসিড রস নিঃসৃত হতে থাকে। যা খাবার ভেঙে পাচন প্রক্রিয়ায় সহায়তা করে। প্রতিনিয়ত এই রস নিঃসৃত হতে থাকে। তাই যথাসময়ে খাবার না খেলে ওই রসগুলো থেকে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার উৎপত্তি হতে পারে।

ভারতীয় পুষ্টিবিদ শ্রেয়া ভ্রামি অ্যাসিডিটির কারণ এবং এর উপশমে কিছু ঘরোয়া উপায় জানান খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনে। এখানে ওই বিষয়গুলো তুলে ধরা হল।

অ্যাসিডিটির কারণ:

নিয়মিত ফাস্টফুড ও রাস্তার খাবার খাওয়ার অভ্যাস অ্যাসিডিটির মূল কারণ। তাছাড়া অতিরিক্ত ক্যাফেইন গ্রহনের কারণেও অ্যাসিডিটি হতে পারে। পাশাপাশি ধূমপানের অভ্যাস যাদের তাদের ক্ষেত্রেও গ্যাস্ট্রিকে ভোগা স্বাভাবিক বিষয়। এমনি অ্যলকোহল গ্রহণও গ্যাস্ট্রিকের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাসের কারণে পাকস্থলীতে অনবরত নিঃসৃত অ্যাসিডগুলো গ্যাস্ট্রিক তৈরি করে। তাই খাবারের অভ্যাসে দীর্ঘ বিরতি থাকলে গ্যাস্ট্রিক হতে পারে।

সহজ কিছু সমাধান:

গ্যাসের সমস্যার প্রতিরোধে প্রতিদিন এক গ্লাস কুসুম গরম পানি পান করুন।

গুড়, লেবু, কলা, কাঠ বাদাম, দই ইত্যাদি গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে চটজলদি সমাধান দিতে পারে।

গ্যাস্ট্রিকের ব্যথা বা অন্যান্য সমস্যা দেখা দিলে তা উপশমে বেশ কার্যকর নারিকেলের পানি।

কিছু তুলসীপাতা পানিতে ফুটিয়ে নিতে হবে। এরপর তা ঠাণ্ডা করে ছেঁকে আলাদা করে নিতে হবে। প্রতিবার খাবার খাওয়ার পর এক গ্লাস তুলসীপাতার পানি পান করতে হবে।

প্রতিদিনের খাবারে কলা, শসা ও তরমুজ রাখা উচিত।

Check Also

ঘুমের সময় মেয়েদের অন্তর্বাস পরা কি জরুরি?

ঘুমের সময় পোশাকটি কেমন হবে তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন বেশিরভাগ নারী। কারণ আঁটসাঁট পোশাক পরলে …