লেবুর ৫টি জাদুকরী ফেস প্যাক ব্রণ থেকে দিবে মুক্তি

rupcare_lemon pack
বর্তমানে বাজারে ব্রণ দূর করার জন্য অনেক পণ্য পাওয়া যায়। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই ব্রণ দূর করার জন্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াহীন ও সুলভ মূল্যের প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করাটাই পছন্দ করেন দীর্ঘস্থায়ী ফলাফল লাভের জন্য। লেবু এশিয়ার স্থানীয় টক স্বাদের সাইট্রাস ফল। সুগন্ধি খোসা ও রস যুক্ত এই ফলটি অনেক স্বাস্থ্য ও সৌন্দর্য সমস্যার নিরাময়ে কার্যকরী ভূমিকা রাখে।
ব্রণের দাগ দূর করার জন্য প্রাকৃতিক উপাদানগুলোর মধ্যে লেবু সবচেয়ে কার্যকরী। যদি এটি নিয়মিত ব্যবহার করা হয় তাহলে ব্রণের কালো দাগ দূর হয়। সাধারণত কিশোর কিশোরিদের ব্রণের সমস্যা বেশি হতে দেখা যায়। লেবুতে আছে ভিটামিন সি, ফ্যাট, ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, কার্বোহাইড্রেট ও প্রোটিন। লেবুর ভিটামিন ও প্রোটিন গাড় দাগ, ব্ল্যাক ও হোয়াইট হেডস, ব্রণ এবং ত্বকের পোড়া ভাব দূর করতে পারে। লেবুর অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও ব্লিচিং উপাদান ময়লা ও মরা চামড়ার বিরুদ্ধে চমৎকার ভাবে কাজ করে। আসুন তাহলে জেনে নেই লেবুর তৈরি কিছু ফেস প্যাক তৈরি ও ব্যবহার প্রণালী।
১। প্লেইন লেবুর রস
যাদের ত্বক খুব বেশি সংবেদনশীল ও শুষ্ক নয় তাদের জন্য এই পদ্ধতিটি উপযুক্ত। সংবেদনশীল ও শুষ্ক ত্বক যাদের তাদের ক্ষেত্রে সরাসরি লেবু ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়, কিন্তু অন্যদের জন্য এটি চমৎকার কাজ করে।
· একটি লেবুর রস বের করে নিন।
· একটি কটন বল এই রসে চুবিয়ে বাড়তি রসটুকু নিংড়ে নিন।
· এবার কটন বলটি ব্রণ আক্রান্ত স্থানে আস্তে আস্তে লাগান।
· ১০ মিনিট এভাবে রেখে দিন অথবা যতক্ষণ না শুকায় ততক্ষণ রেখে দিন।
· তারপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন এবং শুকনো তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন।
· উজ্জ্বল ও দীপ্তিময় ত্বকের জন্য প্রতিদিন দুইবার এটি করুন।
· সংবেদনশীল ও শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদের জন্য লেবুর রসের সাথে পানি মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।
২। লেবুর রস, মধু ও আমন্ড তেল
দুই টেবিলচামচ মধুতে এক টেবিলচামচ লেবুর রস ও কয়েকফোটা আমন্ড তেল মিশিয়ে ব্রণের উপরে লাগান এবং ২০ মিনিট রেখে দিন। তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ও তোয়ালে দিয়ে মুখ মুছে নিন। শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদের জন্য এই মাস্কটি আদর্শ একটি মাস্ক। মধু ও আমন্ড তেল ত্বকে পুষ্টি সরবরাহ করে ও ত্বককে উজ্জ্বল হতে সাহায্য করে। প্রতিদিন একবার এটি ব্যবহার করুন।
৩। ডিমের সাদা অংশ ও লেবুর রস
একটি ডিমের সাদা অংশের সাথে ২ টেবিল চামুচ লেবুর রস মিশিয়ে মিশ্রণটি তিনটি ভাগে ভাগ করে নিন। এক অংশের মিশ্রণ মুখে লাগান এবং ৫-৭ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে যাওয়ার পর মিশ্রণের ২য় অংশ মুখে লাগান এবং আবারো ৫-৭ মিনিট রেখে শুকাতে দিন। তারপর মিশ্রণের ৩য় অংশ মুখে লাগান এবং শুকানোর পর উষ্ণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং মুখ মুছে নিন।
৪। ছোলা ও লেবুর রস
এক টেবিল চামচ ছোলার ময়দার সাথে একটি লেবুর রস মিশিয়ে ভালোভাবে পেস্ট তৈরি করে নিন। ব্রণ আক্রান্ত স্থানে এই পেস্ট ভালোভাবে লাগিয়ে শুকাতে দিন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং মুখ মুছে নিন। তারপর যদি খুব বেশি শুষ্ক মনে হয় তাহলে ময়েশ্চারাইজার লাগান। ব্রণমুক্ত ত্বকের জন্য প্রতিদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।
৫। দই ও লেবুর রস
লেবুর রসের সাথে কিছুটা দই মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে ব্রণের স্থানে লাগান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ব্রণের বৃদ্ধিকে স্তিমিত করতে এবং দাগ দূর করতে নিয়মিত এই প্যাকটি ব্যবহার করুন।
টিপস :
· লেবুর প্যাক ব্যবহার করার পর অন্তত ৩০ মিনিট সূর্যের আলোতে না যাওয়া ভালো।
· লেবুর রস খুবই এসিডিক বলে এটি ত্বকের তেল শোষণ করে এবং ত্বকের pH লেভেল নষ্ট করে দিতে পারে।
· আপনাকে ধৈর্য সহকারে এই পদ্ধতিগুলোর যেকোনটি ব্যবহার কতে হবে পরিপূর্ণভাবে ব্রণ ও দাগ মুক্ত হওয়ার জন্য।
· ক্ষতর উপরে কখনোই লেবুর রস ব্যবহার করবেন না।
· ব্রণের উপরে ব্যবহার করার পরে যদি ত্বক বেশি শুষ্ক হয়ে যায়, লাল হয়ে যায়, জ্বালা করে ও ব্রণ বৃদ্ধি পায় তাহলে এই প্যাক ব্যবহার বন্ধ করে দিন এবং একজন ডারমাটোলজিস্টের সাহায্য নিন।
· এছাড়া লেবুর এই প্যাকগুলো সবই ঘরে প্রস্তুত করা যায়। নিয়মিত লেবুর প্যাক ব্যবহার করে ব্রণ ও দাগ দূর করুন সহজেই।

Check Also

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে খুবই কার্যকরী কমলার খোসা

সৌন্দর্যের পুরোটা জুড়েই থাকে আমাদের ত্বক। কিন্তু এই ত্বকেই যদি কালো দাগ পড়ে যায়, তবেই …