মুখের ‘স্পা’ ঘরেই

amitumi_home spa

ঋতুবদলের ধকল ছাড়াও সবসমই ত্বক কিছু পুষ্টি চায় যেন সে তার যৌবন ধরে রাখতে পারে।

ত্বকের এই পুষ্টির জন্য নামীদামী পণ্যের উপর নির্ভরশীল না হলেও চলবে। রান্না ঘরেই এমন অনেক জিনিস আছে যেগুলো দিয়ে অনেক নামী পণ্যের চেয়েও ভালো ফল পাওয়া সম্ভব।

 

ওটস ও মধুর স্ক্রাবার:

এ টেবিল-চামচ মধু, এক টেবিল-চামচ মিহি গুঁড়া করা কাঠবাদাম, দুই টেবিল-চামচ শুকনা ওটস আর সামান্য টক দই বা লেবুর রস মেশালেই হয়ে যায় চমৎকার একটা স্ক্রাবার।

দই-মধুর রূপটান:

টক দই, মধু সমান অনুপাতে নিয়ে পরিষ্কার আর্দ্র ত্বকে মেখে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এই মিশ্রণ ত্বক নরম, পেলব করে। এতে থাকা মধু ছোট ফুসকুড়ির মতো ব্রণ নিরাময়ে কাজ করে।

কলার মুখের ক্রিম:

অর্ধেক পাকাকলা চটকে ক্রিমের মতো করে নিতে হবে। এরপরে তা মুখে মেখে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে প্রথমে গরম পানিতে পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। এতে ত্বকের কোষের ছিদ্রের মুখ বন্ধ হয়। সবশেষে একটা তোয়ালে চেপে পানিটা মুছে নিতে হবে।

মধু ও বাদামি চিনি:

দুই টেবিল-চামচ মধুর সঙ্গে দুই থেকে তিন চা-চামচ বাদামি চিনি মিশিয়ে নিতে হবে। এই মিশ্রণ অসাধারণ স্ক্রাবার। মুখ ছাড়াও শরীরের বাকি অংশেও ব্যবহার করা যেতে পারে। স্ক্রাব করার পরে হালকা কুসুম পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে নিতে হবে।

লালচে ভাব দূর করার ফেইশল:

একটা আস্ত ডিম এবং গোটা একটা লেবুর রস মিশিয়ে ফেটাতে হবে। এক সময় যখন সেটা পানির মতো মিশে যাবে তখন মুখে মেখে মিনিট ১৫ রেখে গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে ত্বকের লালচে ভাবে দূর হবে।

Check Also

ফর্সা ত্বক চান? মেনে চলুন এই ৩ নিয়ম

আবহাওয়ার খামখেয়ালি প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকেও। এই রোদ, বৃষ্টি, ধুলোবালি- সবকিছুর সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে …