পাত্রীর বয়স ১১, পাত্রের ৪১! মালয়েশিয়াজুড়ে তোলপাড়

114519Malaya

একটি অসম বয়সের বিয়েকে নিয়ে মালয়েশিয়াজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। এই বিয়েতে পাত্রীর বয়স ১১ এবং পাত্রের ৪১। এ প্রেক্ষিতে দেশটিতে বিয়ের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স ১৮ করার দাবি উঠেছে।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তির আরো দুজন স্ত্রী রয়েছে। শুধু তাই নয়, তার ছয় সন্তানও রয়েছে।

কনে তথা শিশুটির বাবা-মা জানিয়েছেন, তারা তাদের মেয়েকে একটি শর্তে ওই ব্যক্তির তৃতীয় স্ত্রী হওয়ার অনুমতি দিয়েছেন। শর্তটি হলো, মেয়ে ১৬ বছর পর্যন্ত তাদের কাছেই থাকবে।

জানা গেছে, ব্যক্তিটি একজন সমৃদ্ধশালী ব্যবসায়ী। শিশুটির পরিবার দরিদ্র্য।

শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ-র মালয়েশীয় প্রতিনিধি বলছেন, এই ‘জঘন্য ও অগ্রহণযোগ্য’ বিয়েতে শিশুটির ভালো হতে পারে না।

মালয়েশিয়ার অধিকারকর্মী সৈয়দ আজমি আলহাবশি বলেছেন, ১১ বছর বয়সী মেয়েকে বিয়ে করা মানে শিশু যৌন নিপীড়নকারীর মতো আচরণ।

প্রসঙ্গত, ১৬ বছরের কম বয়সীদের ক্ষেত্রেও মালয়েশিয়ার ইসলামি শরিয়া আদালত বিয়ের অনুমোদন দেওয়ার এখতিয়ার রাখে।

Check Also

মাস্ক পরলেই ঝাপসা হচ্ছে চশমার গ্লাস, যা করবেন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে মাস্ক ব্যবহার করা আমাদের প্রতিদিনের রুটিন। তবে মাস্ক পরলে উপকারের সঙ্গে সঙ্গে …