ফেসবুকে বরিশালের ছেলের প্রেমে সুন্দরী মার্কিন যুবতী

পিরিতি এই জগতে জাতি-কূলের ধার ধারে না/ যার সনে যার ভালোবাসা, তারে ছাড়া প্রাণ বাঁচে না। দোতারায় সুর তোলা বয়াতিদের মুখে মুখে ফেরা এই গানের কথাই যেন আবারও সত্যি প্রমাণ করলেন সুন্দরী ও উচ্চশিক্ষিত যুবতী সারাহ মেকিয়েন। প্রেমের টানে সুদূর আমেরিকা থেকে উড়ে বরিশালে এসে তুলনামূলক কমশিক্ষিত প্রেমিককে বিয়ে করলেন ক্যালিফোর্নিয়ার এই সমাজকর্মী।

গত বুধবার (২১ নভেম্বর) বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে নগরীর বান্দ রোডের একটি আবাসিক হোটেলে বাসর রাত যাপন করেন বর-কনে। এরপর রিকশায় চড়ে ঘুরে বেড়িয়েছেন প্রেমের কবি জীবনানন্দের শহর। বর মাইকেল অপু মণ্ডল বরিশাল শহরের কাউনিয়া প্রধান সড়কের খ্রিস্টান কলোনির বাসিন্দা। ওই কলোনির রবিন মণ্ডলের দুই মেয়ে ও এক ছেলের মধ্যে সবার ছোট অপু।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ১৯ নভেম্বর ফেসবুকে একটি বিতর্ক (ডিবেট) গ্রুপের মাধ্যমে সারাহর সঙ্গে পরিচয় হয় অপুর। এরপর থেকে নিয়মিত যোগাযোগ হতো তাদের মধ্যে। কথা হতো ভিডিও কলে। এভাবে কথা বলতে বলতে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ব্যক্তি সম্পর্ক পারিবারিক সম্পর্কে রূপ নেয়। ভিডিও কলে উভয় পরিবারের সদস্যরা কথা বলেন এবং ঘনিষ্ঠ হন।

গত সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের দিকে সারাহ এবং অপু উভয় পরিবারের সম্মতিতে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। বিয়ে করতে অপু আমেরিকায় যাওয়ার সুযোগ না পেলেও ভিসা প্রসেসিং করে গত ১৯ নভেম্বর সারা বাংলাদেশে আসেন। ওইদিন ঢাকার হযরত শাহজালাল (রা.) আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অপুর সঙ্গে সারাহর প্রথম সরাসরি সাক্ষাৎ হয়। ওইদিনই তাকে নিয়ে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওনা হন অপু। ২০ নভেম্বর বরিশালে এসে পৌঁছলে সারাহকে ফুলের শুভেচ্ছা জানায় অপুর পরিবার।

অপুর মেজ বোন স্কুলশিক্ষিকা সুমা রুৎ মণ্ডল জানান, সারাহ মেকিয়েন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী। তারাও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী। বাঙালি রীতি মেনে গত বুধবার গায়ে হলুদ এবং আংটি পরানোসহ বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। বুধবার তাদের আশীর্বাদ করেন চার্চের ফাদার। বিয়ের দুই দিনের আনুষ্ঠানিকতার সময় সারাহ শাড়ি পড়েন। তিনি ভাঙা ভাঙা বাংলা বলতে পারেন। এ দেশের মানুষের ভালোবাসা এবং আন্তরিকতায় সারাহ মুগ্ধ।

Check Also

কিরণমালা নয় এবার ঈদের পোশাকের নাম এবার ফেসবুক, মেসেঞ্জার ও থ্রিজি!

গেল ঈদে ভারতীয় টিভি চ্যানেলের নায়িকাদের নামের পোশাকের বেশ কদর ছিল। জল নূপুর, কিরণ মালা, …