স্বামীর থেকে আলাদা থাকার বিষয়ে মুখ খুললেন ন্যান্সি

কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি প্রথম সংসার ছেড়ে ভালোবেসে দ্বিতীয় বিয়ে করেন নাজিমুজ্জামান জায়েদকে। ২০১৩ সালের ০৪ মার্চ বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। ন্যান্সি-জায়েদের সংসার জীবন ছয় বছরেরও বেশি সময়ের। বেশ ভালোই চলছিলো তাদের সংসার। কিন্তু সম্প্রতি শোনা যাচ্ছে নতুন সুর। ন্যান্সি-জায়েদের মধ্যে চলছে মতানৈক্য। যে কারণে তারা এখন আলাদাও থাকছেন!

সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) এ বিষয়ে কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি গণমাধ্যমকে বিয়য়টি নিশ্চিত করেন।

গণমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ হবার পর ন্যান্সির ভক্তদের মধ্যে নানা প্রশ্ন উঠতে থাকে। বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা যেতে থাকে শোবিজ অঙ্গনে।

সেদিন কী কারণে একসঙ্গে থাকছেন না এ বিষয়ে কিছুই না বললেও ভক্তদের উদ্দেশে এবার বিষয়টি খোলাশা করেছেন ন্যান্সি।

তিনি স্পষ্টভাবে বলেন, বিচ্ছেদের জন্য নয়, স্বামীর সঙ্গে দাম্পত্য সম্পর্কটাকে আরেকটু ঝালিয়ে রঙিন করে তুলতেই আলাদা থাকছেন তিনি।

ন্যান্সি বলেন, বিচ্ছেদের মতো কোনো সিদ্ধান্ত আমরা নিইনি। স্বামীর ব্যাপারে আমার কোনো অভিযোগ নেই। একে অপরকে আরও বেশি করে অনুভূত করতেই আলাদা থাকছেন বলে জানান ন্যান্সি।

তিনি বলেন, জায়েদের সঙ্গে আমার সম্পর্কটা ‘স্বামী-স্ত্রীর চেয়েও বেশি বন্ধুর’। কেননা ১৫ বছর ধরে একে অপরকে জানি।

তাহলে কেন এমন আলাদা থাকা এমন প্রশ্নে ন্যান্সি বলেন, আমাদের সম্পর্কটা খুবই ‘নিরামিষ’ টাইপের হয়ে গেছে। আমরা আমাদের নিয়ে ইদানীং ভাবছি না। বেশিরভাগ কথাই হয় সংসার, বাচ্চা, ওদের ভবিষ্যত নিয়ে; আমাদের নিয়ে কোনও আলোচনা হয় না। সেকারণেই আলাদা থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি।

তিনি মনে করেন, কিছুদিন একসঙ্গে না থাকলে মানুষের অনুপস্থিতি বা শূণ্যতাটা পুরোপুরি উপলব্ধি করা যায়। তখনই একে অন্যের প্রয়োজনটা বুঝতে পারে।

সম্পর্কটা এমন ‘নিরামিষ’ টাইপের কেন হলো প্রশ্নে ন্যান্সি জানান, ১৭ দিন বয়সী দ্বিতীয় কন্যা আলিনা মৃত্যু ও জায়েদের বাবার প্যারালাইজড হওয়া এই দুই ঘটনা দুজনের সংসার ও মানসিক সম্পর্কে বেশ খানিকটা চাপ সৃষ্টি করেছে।

সেই গুমোট পরিবেশ থেকে উত্তোরণের উদ্দেশেই এ আলাদা থাকা। এছাড়া আর কিছুই নয়।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ৪ মার্চ ময়মনসিংহ পৌরসভার কর্মকর্তা নাজিমুজ্জামান জায়েদকে বিয়ে করেন ন্যান্সি। তাদের সংসারে নায়লা নামে এক কন্যা আছে।

২০১৮ সালের ১৩ ডিসেম্বর ন্যান্সির জন্মদিনে জমি উপহার দিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেন জায়েদ। এদিন জায়েদের কাছ থেকে ৫ শতাংশ জমি উপহার পান ন্যান্সি।

স্বামীর কাছ থেকে মূল্যবান এই উপহার পেয়ে উচ্ছ্বসিত ন্যান্সি বলেন, কিছুই বলতে পারব না, এমন উপহারে বোবা হয়ে গেছি।

স্বামী হিসেবে জায়েদ কেমন স্বভাবের এমন প্রশ্নের জবাবে ন্যান্সি বলেন, জায়েদ খুব নরম-সরম মানুষ, ঠাণ্ডা মেজাজের।

Check Also

হৃতিক রোশনের বোন হাসপাতালে ভর্তি

মানসিক দিক থেকে অসুস্থ সুনায়নাকে ২৪ ঘণ্টা নজরে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। বলিউড তারকা হৃতিক রোশনের …