ওজন কমাতে ঘুমানোর আগে যা করবেন

ধীরে ধীরে মোটা হয়ে যাচ্ছেন কিংবা কিছুতেই শুকাতে পারছেন না আপনি। কিন্তু জিমে গিয়ে মেদ কমানো মতো সময় আপনার নেই। আপনি যদি এই সমস্যায় পড়েন তাহলেও ওজন কমানোর সহজ কিছু উপায় রয়েছে। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে যদি করা যায় কয়েকটি সহজ কাজ তাহলেই মুক্তি পাবেন ওজন বাড়া থেকে।

রাতে তাড়াতাড়ি খেয়ে নিন: সেল মেটাবলিজম নামের একটি জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়, রাত ৮টার সময় যদি খেয়ে নেয়া যায় রাতের খাওয়া তাহলে শরীরে ক্যালোরির পরিমান কমে এবং যার কারণে কমে যায় চর্বিও।

ঘুমের সময়টা বাড়িয়ে নিন: সাধারণত মানুষ ধারণা করেন, ঘুমালে শরীরে চর্বি বাড়ে‌। কিন্তু গবেষকরা বলছেন, এটা ভুল ধারণা। বরং বেশি ঘুমালে খাওয়ার সময়টা কমে যায়। আরো কমে যায় শরীরে সামগ্রিক খাদ্যগ্রহণের পরিমান। এতে শরীরের অতিরিক্ত চর্বিও হ্রাস পায়।

ঘুমানোর আগে হালকা কিছু খান: তাড়াতাড়ি রাতের খাবার খেয়ে ফেললে যদি ঘুমাতে যাওয়ার সময় খিদে পায় তবে চিপস বা চানাচুর খাবেন না একেবারেই। এ সময়ে খেতে পারে হালকা কোনো খাবার। সবচেয়ে ভাল হয় যদি ফ্রুট স্যালাড খেতে পারেন।

পুদিনা পাতার ঘ্রাণ নিন: জার্নাল অফ নিউরোলজিকাল অ্যান্ড অর্থোপেডিক মেডিসিন- এ প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রতি দুই ঘণ্টা পরপর যদি পুদিনা পাতার গন্ধ নেয়া যায় তাহলে প্রতি মাসে গড়ে ২ কেজি করে ওজন হ্রাস পায়।

ঘুমের সময় শোয়ার ঘরের তাপমাত্রা রাখুন কম: গরমের দিনে এটি মেনে চলা কঠিন কিন্তু কোনো ভাবে যদি শোয়ার ঘরের তাপমাত্রা কমিয়ে রাখা যায় তাহলে পেটের চর্বি কমে। আবার যাদের এয়ারকন্ডিশন আছে তারা তাপমাত্রা অতিরিক্ত কমিয়ে রাখবেন না।

শোয়ার ঘরটি অন্ধকার রাখুন: আমেরিকান জার্নাল অফ এপিডেমিওলজি’তে প্রকাশিত একটি গবেষণায় বলা হয়েছে, ওজন কমাতে চাইলে নিশ্ছিদ্র অন্ধকারের মধ্যে ঘুমানোটাই উচিত। দেখা গিয়েছে, অন্ধকার ঘরে যারা ঘুমান তাদের ওজন বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকে ২১ শতাংশ কম।

ঘুমানোর আগে মোবাইল ফোন নয়: একটি জরিপে দেখা গিয়েছে, ঘুমের আগে মোবাইল, ট্যাব বা ল্যাপটপ যারা দেখেন তাদের মোটা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি।

ঘুমের আগে টিভি নয়: একটি জরিপে বলা হয়েছে, প্রতি দুই ঘণ্টা টিভি দেখার ফলে প্রতি ৬ মাসে গড়ে ৩ কেজি করে ওজন বেড়ে যায়।

ঘুমের আগে গরম পানিতে গোসল: শোয়ার আগে গরম পানিতে গোসল করলে মস্তিষ্ক থেকে অক্সিটোসিন নামের এক হরমোন ক্ষরিত হয়। এই হরমোন শু‌ধু যে আপনার উদ্বেগ দূর করে তা-ই নয়, এই হরমোন অতিরিক্ত চর্বি কমাতেও সাহায্য করে।

Check Also

চকোলেট খান, ওজন কমান

বাড়তি ওজন নিয়ে দুশ্চিন্তা আবার চকোলেট দেখলেই জিভে জল। এমন হওয়াটাই স্বাভাবিক। কারণ চকোলেট এমনই …