প্রতিদিন কফি খেলে কী হয়?

নিয়মিত কফি পান করলে ক্ষতির চেয়ে উপকারই বেশি হয়। সারাদিনের ক্লান্তি দূর করার জন্য এককাপ কফির জুড়ি নেই।

শুধু কি তাই? অফিসে কাজের ফাঁকে, বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিতে, প্রিয়জনের সঙ্গে সময় কাটানো ছাড়াও সারাদিন কাজের শেষে বাড়ি ফেরার পর সবকিছুর মাঝে একটুখানি প্রশান্তি যেন এককাপ কফি।

শরীরে প্রাকৃতিক ওষুধ হিসেবে কাজ করে কফি। নিয়মিত কফি খেলে নানা ধরনের রোগবালাই থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

শক্তি যোগায়
শারীরিক অবসাদ দূর করার জন্য মোক্ষম পানীয় কফি। শরীর মন চাঙ্গা করতে এককাপ গরম কফির বিকল্প নাই। কফিতে থাকা উপাদানের নাম ক্যাফেইন। ক্যাফেইন শরীরে উদ্যম ও উৎসাহ তৈরি করে। তাই খেলাধুলা কিংবা কঠিন কাজ করার আগে কফি খেলে উপকার পাবেন।

ওজন কমে
ওজন কমাতে নির্ভর করতে পারেন কফির ওপর। কফি ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে এবং কর্মক্ষমতা বাড়ায়। সকালে জিম শুরু করার আগে এককাপ ব্ল্যাক কফি খেলে শরীরের ক্যালরি ক্ষয় হয়। ফলে ওজন কমে।

কর্মক্ষমতা বাড়ে
কফি কর্মক্ষমতা বাড়ায়। ক্যাফেইন রক্তের এপিনেফ্রিন বাড়িয়ে তোলে। ফলে কাজে উদ্যম বেড়ে যায়।

ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমে
কফি ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায় ২৩ থেকে ৬৭ শতাংশ পর্যন্ত। জটিল এই রোগের ঝুঁকির হাত থেকে বাঁচতে কফি খান নিয়মিত।

হতাশা কমিয়ে প্রশান্তি আনে
মানসিক চাপে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন অনেকেই। কী করবেন বুঝতে পারেন না। তখন এককাপ কফি মানসিক ও শারীরিক প্রশান্তি দেবে। চাপের কারণে যেসব রোগ দানা বাঁধে শরীরে সেগুলো প্রতিরোধে সাহায্য করে কফি।

Check Also

জেনে নিন ডেঙ্গু হলে রক্তে প্লাটিলেট বাড়াতে কোন খাবার উপযোগী

ডেঙ্গু হেমোরেজিক ফিভার আক্রান্ত বেশিরভাগ রোগীরই রক্তে প্লাটিলেটের সংখ্যা কমে যায়। একজন সুস্থ মানুষের রক্তে …