ব্রেকআপের পরে নতুন সম্পর্কে জড়াচ্ছেন?

বন্ধুমহলে আলোচিত জুটি ছিল সাব্বির-আনিকা। ভালোবাসার উদাহরণ হিসেবে অনেকেই তাদের নাম বলতো। এরপর হঠাৎই একদিন জানা গেল, তারা আর সম্পর্কে নেই। ভালোবাসাবাসির ইতি টেনে যে যার মতো মুক্ত। তবে কেউ কাউকে দোষারোপও করছে না। ব্যক্তিগত বিষয় ভেবে বন্ধুরাও খুব একটা ঘাঁটালো না ওদের। কিন্তু জীবন তো একা কাটানো সম্ভব নয়। তাই নতুন সঙ্গী এসে জোটে তাদের জীবনেও।

গল্পটি কাল্পনিক হলেও এরকমটা হতেই পারে। এমন উদাহরণও অনেক পাওয়া যাবে। কিন্তু দীর্ঘদিনের সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে নতুন কোনো সম্পর্ক শুরু করার আগে কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখা জরুরি-

ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করুন
মন চাইলো আর জড়িয়ে গেলাম- এমন মানসিকতা দূরে রাখুন। সম্পর্কের ভবিষ্যৎ কী হতে পারে তা ভেবেচিন্তে এগোন। প্রেম করার মানসিকতা এখন আর রাখবেন না। কারণ ওই বয়স আপনি পেরিয়ে এসেছেন। এমনটাও ভাববেন না যে পুরনোজনের জায়গায় নতুনজনকে রিপ্লেস করবেন।

তুলনা করবেন না
প্রত্যেক মানুষই আলাদা। একজনের থেকে অন্যজনের স্বভাব, আচরণও আলাদা হবে এটাই স্বাভাবিক। আগেরজন এত ভালো ছিল, দামি উপহার দিত বা অনেক কথা না বললেই বুঝে যেত এসব ভুল তুলনা টানবেন না। প্রথমেই মাথা থেকে এসব বের করে দিন। এছাড়াও স্যালারি নিয়েও কোনো তুলনা টানবেন না।

সময় দিন
হুট করে প্রেম নয় বা রাগারাগি নয়। সময় দিন। সময়ে সাথে সাথে অনেককিছু বদলে যায়। একে অপরকে বুঝুন। অতিরিক্ত ঘাঁটাবেন না। নিজেও ভাবার মতো সময় নিন। অন্যকেও দিন।

দুই নৌকায় পা দেবেন না
পুরনোর কাছে ফিরে যাবেন কিনা এই নিয়ে কোনো দোটানা রাখবেন না। মনে রাখবেন স্বেচ্ছায় এবং দুজনের সিদ্ধান্তেই আপনারা সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসেছেন। যেখানে আছেন সেখানেই মন দিন।

ইতিবাচক ভাবনা রাখুন
হতাশা, দুঃখ, কান্না মনখারাপ একদম নয়। নতুনজনের কাছে সবসময় নিজের হতাশার কথা বলবেন না। ভালো সময় কাটান। গল্প করুন। ইতিবাচক ভাবনা বজায় রাখার চেষ্টা করুন।

Check Also

বাংলাদেশের মেয়েদের যেমন ছেলে পছন্দ

গল্প, কবিতা বা সাহিত্যে একজন পুরুষের দৃষ্টিতে নারীর সৌন্দর্যের বর্ণনা নানাভাবে উঠে এসেছে। কিন্তু এর …