১৮ বছর বয়সে কি সত্যিই মানুষ ‘অ্যাডাল্ট’ হয়ে যায়?

কোন সময়ে একজন মানুষকে আসলে প্রাপ্তবয়স্ক বা ‘অ্যাডাল্ট’ বলা যায়? খুব সহজে আপনি বলে ফেলতে পারেন, আইনত ১৮ বছর বয়সে একজন মানুষ অ্যাডাল্ট হয়। কেউ কেউ দাবি করেন, পড়াশোনা শেষ করে চাকরি পেলে, বিয়ে করলে বা বাচ্চা হলেই একজন মানুষ ‘অ্যাডাল্ট’ হওয়ার মর্ম বুঝতে পারে। কিন্তু বিজ্ঞান কী বলে?

বিজ্ঞানের উত্তরটি এত সোজাসাপ্টা নয়। নতুন এক গবেষণা দাবি করে, বয়স অন্তত ৩০-এর কোঠায় না গেলে আমরা ‘অ্যাডাল্ট’ হই না। তবে বয়ঃসন্ধি, আক্কেল দাঁত ও প্রথম বার যৌন সম্পর্কের সময়ের ওপরে ‘অ্যাডাল্ট’ হওয়া নির্ভর করে। টিনএজ থেকে শুরু করে বয়স যখন ২০-এর কোঠায়, তখন মস্তিষ্কে অনেক পরিবর্তন ঘটে। বয়স ৩০ হওয়ার আগপর্যন্ত মস্তিষ্কের নিউরনগুলো একে অপরের সঙ্গে যুক্ত হতে থাকে ও উন্নত হয়। এতে অনেকের আচরণ, এমনকি মানসিক স্বাস্থ্যে পরিবর্তন আসে। কারো কারো সিজোফ্রেনিয়ার মতো মানসিক সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

গবেষকদের মতে, চট করে একজন মানুষ অ্যাডাল্ট হয়ে যায়, তা বলা যাবে না; বরং বছরের পর বছর ধরে একজন মানুষের পরিবর্তন আসে।

১৮ বছর বয়সেই একজন মানুষের শৈশব শেষ হয়ে যায়—এই পুরনো ধারণাটি পাল্টানোর চেষ্টা করছেন গবেষকরা। আমরা যাকে ‘বয়ঃসন্ধি’ বলি, তা আসলে টিনএজ বয়সেই শেষ হয়ে যায় না। ১০ বছর বয়স থেকে শুরু করে ২০-এর কোঠা পর্যন্ত লম্বা হতে পারে বয়ঃসন্ধি। কারণ এই লম্বা সময় ধরেই বয়ঃসন্ধির প্রক্রিয়া চলে শরীর ও মনে।

১৮ বছর বয়সটাকে একটা মাইলস্টোন ধরে নেওয়াটা আসলে পুরনো হয়ে গেছে। ১৮ বছর হওয়ার আগপর্যন্ত একজন মানুষ শিশু, আর ১৮ বছর পার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই অ্যাডাল্ট, এমনটা ভাবার কোনো অবকাশ নেই।

সূত্র: আইএফএলসায়েন্স

Check Also

আগুন ঠেকাতে দরকার

কিছুদিন ধরে অগ্নিকাণ্ডের পরিমাণ বেড়ে যাওয়াতে মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরি হচ্ছে। সে কারণে রাজধানীর বাণিজ্যিক …