অভিমানে অভিনয় ছাড়লেন কুসুম

এই তো কয়েক বছর আগেই তুমুল ব্যস্ত সময় কাটাতে দেখা গেছে অভিনেত্রী কুসুম শিকদারকে। কিন্তু বেশ কিছু দিন ধরেই কুসুম শিকদারের দেখা নেই কোথাও। নাটক চলচ্চিত্রে এমনকি মডেলিংয়েও অনুপস্থিত তিনি। যোগাযোগ নেই মিডিয়া সংশ্লিষ্ট কারও সঙ্গেই। কিন্তু কেন? উত্তর খুঁজতে ফোন করা হয় কুসুম শিকদারের মুঠোফোনে। কিন্তু কুসুমের পরিবর্তে ফোন ধরলেন তার স্বামী। জানালেন, ‘এই নম্বর আর কুসুম ব্যবহার করেন না। তিনি নতুন নম্বর নিয়েছেন। আর কুসুম শিকদার মিডিয়া ছেড়ে দিয়েছেন। তিনি এখন স্বামী-সংসার নিয়েই ব্যস্ত। আর কোনোদিন তার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করবেন না।’

কুসুম শিকদারের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র থেকে জানা যায়, অনেকটা অভিমান নিয়েই মিডিয়া থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন এই অভিনেত্রী। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার পরও নির্মাতারা তাকে ধীরে ধীরে নিয়ে আগ্রহ হারিয়ে ফেলায় এই হতাশা তৈরি হয়েছে। হাতে কাজ কম থাকায় শেষমেশ দুই বছর আগে মিউজিক ভিডিওতে জড়িয়ে পড়েন। ছোট ও বড় পর্দায় দু্যতি ছড়ানো এই অভিনেত্রী সর্বশেষ একটি মিউজিক ভিডিওতে মডেলিং করেন। ‘নেশা’ শিরোনামের এই মিউজিক ভিডিও নিয়ে নতুন করে জ্বলে উঠতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু প্রচার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সমালোচনার শিকার হতে হয় তাকে। এমনকি আইনি জটিলতার কারণে ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলতে বাধ্য হন তিনি। এরপর আর কোনো নাটক কিংবা চলচ্চিত্রে দেখা যায়নি তাকে।

উলেস্নখ্য, ২০১০ সালে মুক্তি পেয়েছিল তার ‘গহীনে শব্দ’ চলচ্চিত্রটি। এ সিনেমায় একজন ভিক্ষুকের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন তিনি। এরপর ২০১২ সালে তার অভিনীত ‘লালটিপ’ ছবিটি ওই বছরের সেরা ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় স্থান পায়। তারপর যৌথ প্রযোজনায় অভিনয় করেছেন গৌতম ঘোষের ‘শঙ্খচিল’-এ। এতে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য কুসুম পান জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। প্রশংসিত হন ভারতেও।

Check Also

নায়ক আলমগীরের বউয়ের চরিত্রে পরীমনি

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা আলমগীর। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুইবার বিয়ে করেছেন। প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের …