উচ্চ রক্তচাপ কমাতে জাদুর মতো কাজ করে এই জুসটি

উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছেন? এই জুসটি আপনাকে অনেকটা প্রশান্তি দিতে পারে।

আপনার যদি উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থাকে, তাহলে তার উপশমে পান করতে পারেন বিটরুটের জুস। বিট বা বিটরুট এমন একটি সবজি যা হিমোগ্লোবিন বাড়াতে কাজ করে, উচ্চ রক্তচাপ কমায় এমনকি ওজন কমাতেও কাজে আসে। রক্তচাপ কমাতে উপকারের কারণ হলো বিটে থাকা নাইট্রিক অক্সাইড। বিটরুটে আরও আছে এমন সব অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা কোলেস্টেরল কমাতে পারে। এতে আছে বি ভিটামিনগুলো, যা মস্তিষ্ক সুস্থ রাখে ও হৃদযন্ত্রের কাজে সাহায্য করে।

গবেষকরা দেখেন, উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসায় বিট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এমনকি শুধু এক গ্লাস বিটের জুসই উপকার করতে সক্ষম। বিটে থাকা নাইট্রিক অক্সাইড হলো সেই রাসায়নিক যা রক্তনালী প্রসারিত করতে পারে। ফলে তা সিস্টোলিক ব্লাড প্রেশার কমায়।

উচ্চ রক্তচাপ এবং কোলেস্টেরল দুটোই কমায় বলে হৃদস্বাস্থ্য ভালো রাখতে আদর্শ খাবার হতে পারে বিট। বিটে ক্যালোরি ও ফ্যাট দুটোই কম থাকে। বিট খাওয়া বা বিটের জুস পান করার আরও কিছু উপকারিতা হলো-

১) হজমে সহায়তা

বিটে অনেক বেশি পরিমাণে ডায়েটারি ফাইবার থাকে, যা হজমে সাহায্য করতে পারে। ফাইবার মলত্যাগ সহজ করে, পেটে উপকারী ব্যাকটেরিয়া বাড়ায়। কোষ্ঠকাঠিন্য এবং আইবিএসের সমস্যায় তাই বিট খেতে পারেন।

২) খাদ্যভ্যাসে সহজে যোগ করা যায়

বিটরুটের স্বাদটা কেউ পছন্দ করেন, কেউ করেন না। তবে তা সহজেই জুস, সালাদ বা তরকারিতে খাওয়া যায়।

৩) প্রদাহ কমায়

বিটে থাকে বেটালাইন পিগমেন্ট, যা শরীরে প্রদাহ বা ইনফ্লামেশন কমাতে পারে। হৃদরোগ ও ওবেসিটির মতো বেশকিছু রোগের পেছনে ইনফ্লামেশনের অবদান আছে।

৪) মস্তিষ্কের জন্য ভালো

বিটরুটে থাকা নাইট্রেট মস্তিষ্কে রক্ত সরবরাহ বাড়ায়। বয়সের কারণে মানসিক শক্তি হ্রাস বাধা দেয় বিটরুট। এতে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তি ভালো থাকে।

৫) খেলোয়াড়দের উপকারে আসে

গবেষণা বলে, বিটরুট শরীরে অক্সিজেনের সদ্ব্যবহার করতে কাজে আসে, আর কোষে শক্তি উৎপাদনের অঙ্গাণু মাইটোকন্ড্রিয়ার কার্যক্ষমতা বাড়ায়। এতে খেলোয়াড়রা বেশি সময় পরিশ্রম করতে পারেন।

সূত্র: এনডিটিভি

Check Also

আগুন থেকে নিরাপদ থাকতে যা করবেন

চুড়িহাট্টা থেকে বনানী—ঢাকার দুই প্রান্ত আগুনের লেলিহান শিখায় জ্বলেপুড়ে ছারখার। মর্মান্তিক দুই দুর্ঘটনায় প্রাণহানি হয়েছে …