শ্বাসকজনিত সমস্যা কমায় কালো জিরা

প্রাচীন কাল থেকে কালো জিরা আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এতে থাকা বিভিন্ন উপাদান শরীরের নানাবিধ অসুখ সারাতে দারুণ কার্যকরী। যেমন-

১. কালো জিরাতে উপস্থিত ফসফরাস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া শরীরের যে কোনও জীবাণুর সংক্রমণ প্রতিরোধ করতেও এটি বেশ কার্যকরী।

২. পেটের সমস্যা নিরাময়ে কালো জিরার তুলনা নেই। আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা অনুযায়ী, আধা কাপ দুধের সঙ্গে এক চিমটে কালো জিরার গুঁড়া মিশিয়ে খেতে পারলে পেটের সমস্যা থেকে দ্রুত রেহাই পাওয়া যায়।

৩. কালো জিরা শরীরে অ্যান্টি টক্সিনের মতো কাজ করে। এ কারণে প্রস্রাব স্বাভাবিক, নিয়মিত ও পরিষ্কার রাখতে কালো জিরা যথেষ্ট ভূমিকা রাখে।

৪. কালো জিরায় থাকা আয়রন ও ফসফেট শরীরে অক্সিজেনের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা সারাতেও কালো জিরার তুলনা নেই।

৫. অনেকেরই আবহাওয়ার পরিবর্তন বা বর্ষায় ঠান্ডা লেগে মাথা ব্যথার সমস্যা হয়। এই সমস্যা সমাধানে কালো জিরা দারুণ ভূমিকা রাখে।একটা ছোট কাপড়ে কালো জিরা বেঁধে সেটি রোদে শুকোতে দিন। ঘণ্টা খানেক রোদে রাখার পর কালো জিরা ভরা কাপড়ের টুকরাটি নাকের কাছে ধরলে বুকে, মাথায় জমে থাকা কফ তরল হয়ে সহজে বেরিয়ে যায়। এতে মাথা ধরা বা ঝিম ঝিম ভাব দূর হয়ে যায়। সুত্র : জি নিউজ

Check Also

আকর্ষণীয় হতে গিয়ে পুরুষত্বহীন হচ্ছে পুরুষ!

নিজেকে যৌন আবেদনময় হিসেবে উপস্থাপন করতে গিয়ে কিছু পুরুষ নিজের পৌরুষ বা সহজভাবে বললে বাবা …