মুখের মেদ কমছেই না? জেনে নিন সমাধান

মুখটা গোলগাল হলেই মেয়েদের সুন্দরী ভাবার দিন এখন আর নেই। বরং নির্মেদ, ঝরঝরে গড়নের মেয়েই বেশি সুন্দরীর তকমা পাচ্ছে সব জায়গায়। এদিকে আপনার আর কোথাও মেদ জমুক বা না জমুক, একটুতেই মুখে, গালে মেদ জমতে শুরু করে! নানা চেষ্টা করেও মুখের ফোলাভাব যাচ্ছে না। এমনটা হলে এই উপায়গুলো আপনার জন্য-

পরিবর্তন আনুন খাদ্যতালিকায়: শরীরের কোথাও মেদ জমার মানেই হলো আপনার খাওয়া-দাওয়ায় কিছু একটা সমস্যা হচ্ছে। আবার সেটা কমাতে গেলে আপনার ক্যালোরির পরিমাণে ঘাটতি হতে পারে। সেজন্য নতুন করে ডায়েট প্লান করে নিন।

অন্তত ৩৫০০ ক্যালোরি খরচ হওয়ার পর আপনার ৪৫০ গ্রামের মতো ওজন কমে। তাই খাদ্যতালিকা থেকে ছেঁটে ফেলুন বাড়তি ফ্যাট, রিফাইন্ড কার্বোহাইড্রেট, মিষ্টি একেবারে ছেঁটে ফেলতে হবে। এমন খাবার খান যা সুষম ও পুষ্টিকর। তাতেই গলা, চোয়াল আর গালের ফ্যাট কমতে আরম্ভ করবে ধীরে ধীরে।

প্রচুর পানি পান করুন: যেকোনো সমস্যার সমাধানে প্রথমেই বেশি করে পানি পানের পরামর্শ দেয়া হয়। আর একারণেই পানির অপর নাম জীবন। আপনি যত বেশি পানি পান করবেন, তত বেশি টক্সিন শরীরের বাইরে বেরিয়ে যাওয়ার রাস্তা তৈরি হবে। অপরদিকে কম পানি পান করার অর্থ হচ্ছে কনস্টিপেশন ও সেই সংক্রান্ত নানা সমস্যা। শরীরকে প্রয়োজনমাফিক পানির জোগান দিতে পারলে বাড়বে হজমশক্তি। তাতে ক্যালোরি পোড়ার হারও বাড়বে।

কার্ডিও এক্সারসাইজ বাড়াতে হবে: বেশি বেশি করে কার্ডিও এক্সারসাইজ করুন। সাঁতার, এরোবিক্স, রানিং, জগিং খুব ভালো এরোবিক্স। এতে হার্ট রেট বাড়বে। পুড়বে বেশি ক্যালোরি। সেই সঙ্গে কিছু ফেসিয়াল এক্সারসাইজও আরম্ভ করুন।

ঘুম বাড়ান: ওজন কমানোর সঙ্গে ঘুমের সম্পর্ক বেশ নিবিড়। আপনি যত বেশি ঘুমাবেন, ওজনও তত তাড়াতাড়ি কমতে আরম্ভ করবে। দিনের পর দিন ক্লান্তি জমা হতে থাকলে মুখের মাসল ক্রমশ ঢিলে হতে আরম্ভ করবে। তাই যথেষ্ট বিশ্রাম নিন।

মেকআপ ও হেয়ারস্টাইল বদলান: কনট্যুরিংয়ের সাহায্য নিয়ে আপনি মুখের গড়ন বদলে ফেলতে পারেন। সেই সঙ্গে ব্যবহার করুন ব্রোঞ্জার, শিমার পাউডার- ঠিকঠাক ব্যবহার করতে পারলে মুখের আকার বদলে যাবে। সেই সঙ্গে ট্রাই করে দেখুন মানানসই হেয়ারস্টাইল।

Check Also

বয়স বাড়লেও ত্বকে তার ছাপ পড়বে না!

শৈশবে আমাদের ত্বক যতটা কোমল থাকে, তারুণ্যে তার অনেকটাই উধাও হয়ে যায়। আবার বয়সের সাথে …