চিনিতেই পাবেন সুন্দর ত্বক

চিনি খেতে গেলে কতই না হিসেব-নিকেশ। ছেলেবেলায় যেমন শুনতে হয়েছে, এত চিনি খেয়ো না পেটে কৃমি হবে, বড়বেলাও তেমন শুনতে হয়, বেশি চিনি খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। দিন কতটুকু চিনি খাওয়া যাবে, তাও ঠিক করে দেন ডায়েটিশিয়ানরা।

চিনি খেতে নানারকম নিষেধ থাকলেও ত্বকের যত্নে এর ব্যবহারে নিষেধ নেই। প্রাকৃতিক এই স্ক্রাবারকে ত্বকের অন্যতম সেরা যত্নের উপাদান বলে মেনে নিয়েছেন অনেক রূপ বিশেষজ্ঞই। শুধু লেবুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে কনুইয়ের কালো দাগ তোলা ছাড়াও আরও অনেক ম্যাজিকাল গুণ রয়েছে এর। ত্বকের কালো দাগ দূর করা, উজ্জ্বলতা বাড়ানোসহ নানা উপকারে লাগে এই চিনি-

এক্সফোলিয়েশন: ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ত্বককে সজীব করে তোলা চিনির অন্যতম কাজ। অলিভ অয়েল ও কয়েক ফোঁটা নারিকেল তেলের সঙ্গে এক চামচ চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব করুন মুখে। যতক্ষণ না চিনি গলে যায়, ততক্ষণ স্ক্রাবিং করুন। এর পর ঠান্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। মৃত কোষ উঠে ঝলমলে হবে ত্বক।

গ্লো: ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে চিনির ভূমিকা অনেকটা রয়েছে বেশ। কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল ও এক চামচ লেবুর রসের সঙ্গে চিনি মিশিয়ে লাগিয়ে রাখুন মুখে। মিনিট ১৫ পর ধুয়ে নিন মুখ। ধোয়ার সময় স্ক্রাব করেও নিতে পারেন।

ঠোঁট ফাটা: শীতকাল হোক কিংবা গরম, প্রায় সারা বছরই ঠোঁট ফাটার সমস্যা লেগে থাকে অনেকের। তাই ঠোঁট ফাটা বন্ধ করতে ব্যবহার করতে পারেন চিনি। বিটের রস ও চিনি মিশিয়ে লাগিয়ে নিন ঠোঁটে। নরম ও লালচে হওয়ার পাশাপাশি ফাটবেও না ঠোঁট।

স্ট্রেচ মার্ক: স্ট্রেচ মার্ক নিয়ে সমস্যায় ভোগেন অনেকেই। হঠাৎ ওজন কমলে বা বাড়লে ত্বকে স্ট্রেচ মার্ক পড়ে। প্রেগন্যান্সির পরেও এমন দাগ দেখা যায়। তেমন সমস্যা হলে কফি, চিনি, আমন্ড তেল ও মধু মিশিয়ে নিয়মিত মালিশ করুন। ধীরে ধীরে হালকা হবে স্ট্রেচ মার্ক।

Check Also

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে খুবই কার্যকরী কমলার খোসা

সৌন্দর্যের পুরোটা জুড়েই থাকে আমাদের ত্বক। কিন্তু এই ত্বকেই যদি কালো দাগ পড়ে যায়, তবেই …