সঙ্গিনী বয়সে বড় হলে কী করবেন?

সম্পর্ক কখনো বয়স হিসেব করে গড়ে ওঠে না। সমবয়সী বা বয়সে বড় যে কারো সঙ্গেই হতে পারে সম্পর্ক। এক্ষেত্রে মনের মিলই প্রাধান্য পায়। তবে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখাই গুরুত্বপূর্ণ।

আপনার প্রেমিকা যদি বয়সে বড় হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে যা করবেন-

১. প্রেমিকার সঙ্গে গল্প বা আড্ডার ছলে কখনই অপছন্দের কিছু বলে ফেলবেন না। বিশেষ করে কম বয়সের মেয়েদের নিয়ে। এ থেকে তার মনে হতে পারে আপনি ভালো নেই।

২. পেশাগত দিক থেকে তিনি বড় হওয়ায় উচ্চ পদে কাজ করতে পারেন। তা নিয়ে হীনমন্যতায় ভুগবেন না।

৩. বয়সে বড় হলেই যে সম্পর্কের রাশ তার হাতে থাকবে- এমনটা নয়। কখনো না কখনো বিপরীতে থাকা মানুষটিরও ইচ্ছে হয় আবদার করার, সেদিকে নজর রাখুন।

৪. দুজনের মধ্যে বয়সের পার্থক্য কত তা হিসাব করা বন্ধ করুন। এসব ভুলেই সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবেই সেখানে নিজেদের মধ্যে স্বাভাবিকত্ব বজায় থাকবে।

৫. অনেক সময় এ ধরনের সম্পর্ক কেউ মেনে নিতে পারেন না। ফলে তাকে কেউ ছোট করতে পারে, এমন কারোর সামনে না নিয়ে যাওয়াই ভালো।

৬. বয়সের ফারাক যতটাই হোক না কেন, তাকে দুষ্টমি করে হলেও আপু বা অন্য কিছু বলে সম্বোধন না করাই ভালো। এতে আর পাঁচজনের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়া হয় যে আপনাদের মধ্যে বয়সের ফারাক রয়েছে। যা সম্পর্কের জন্য মোটেও মঙ্গল নয়।

Check Also

স্ত্রীকে সুখি রাখার অদম্য পাঁচ উপায়

স্ত্রীকে বিভিন্ন ধরনের জিনিস দিয়ে পটানোর কথা অসংখ্য প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। স্ত্রীকে খুশি করার কিছু …