মিসরে তিন হাজার বছর পুরোনো ৩০টি মমি উদ্ধার

মিসরের দক্ষিণাঞ্চলীয় লুক্সোর শহরে মমিসহ প্রাচীন ৩০টি কাঠের কফিন উদ্ধার করা হয়েছে। কমপক্ষে তিন হাজার বছর আগের কফিনগুলোর ভেতর আছে নারী, পুরুষ ও শিশুদের মমি। গত এক শতাব্দীর মধ্যে একসঙ্গে সবচেয়ে বেশি কাঠের কফিন উদ্ধারের ঘটনা এটি।

দেশটির প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের বিবৃতির বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানায়, লুক্সোরের পশ্চিম তীরে আল আসাসিফ সমাধিক্ষেত্রে একসঙ্গে পাওয়া গেছে এসব কফিন। ওই এলাকাটি ঐতিহাসিক নীল নদের পশ্চিম তীরে অবস্থিত।

কফিনে পাওয়া মমিগুলো এখনো অক্ষত অবস্থায় আছে। এমন কি এর গায়ে যে অলঙ্করণ রয়েছে, যে নকশা আঁকা রয়েছে, তা বিন্দুমাত্র বিলীন হয়নি।

যেহেতু কফিনগুলো একই স্থানে পাশাপাশি রাখা ছিল। তাই মিসরের প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভাষ্যমতে, এটা কোনো উচ্চ পর্যায়ের ধর্মগুরুর পরিবারের সদস্যদের কফিন বা মমি হতে পারে।

বিবৃতিতে আরো জানানো হয়েছে, কফিনগুলো তিন হাজার বছরের পুরোনো বলে মনে করা হচ্ছে।

মিশরের প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক সুপ্রিম কাউন্সিলের প্রধান মোস্তফা আল ওয়াজিরি বলেছেন, মিশরের প্রত্নতত্ত্ববিদ, রক্ষণশীল ও কর্মীদের সমন্বয়ে উৎসর্গিত ব্যক্তিদের একান্ত প্রচেষ্টায় আসাসিফ এলাকায় প্রথম এমন উদঘাটন হলো। এসব কফিনের গায়ে যে তারিখের উল্লেখ আছে তাতে তা ২২তম ফারাওনিক রাজবংশের। এই রাজবংশের সূচনা হয়েছিল খ্রিস্টপূর্ব ১০ম শতাব্দীতে।

Check Also

বরের উদ্দাম নাচে বিরক্ত, আসরেই বিয়ে ভাঙলেন কনে

বিয়ে করতে গিয়ে বরের নাগিন ডান্স দেখে বিরক্ত হয়ে সঙ্গে সঙ্গে বিয়ে বাতিলের সিদ্ধান্ত নেন …