ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সুসংবাদ

ডায়াবেটিস হলে শরীরে ইনসুলিন হরমোনের নিঃসরণ কমে যায়। ফলে দেহের কোষে গ্লুকোজ পৌঁছাতে পারে না। তাই রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যায়।

অতিরিক্ত শর্করাযুক্ত খাবার ডায়াবেটিক রোগীর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। ডায়াবেটিস কখনও পুরোপুরি ভালো হয় না। কিন্তু এ রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। এবার ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য সুসংবাদ দিলেন ভারতের চিকিৎসকরা। হায়দরাবাদের সিএসআইআর-সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার চিকিৎসকরা একটি গবেষণা চালিয়েছেন।

গবেষণায় ডায়াবেটিক রোগীদের রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে এমন প্রোটিনকে কীভাবে কাজে লাগানো যায় তার ওপর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

প্রোটিনকে কাজে লাগনোর উপায় নিয়ে গবেষণায় সাফল্য পেলেন গবেষক-চিকিৎসকরা।

গবেষকরা সেই প্রোটিনকে ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করিয়ে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করার উপায় বের করার দাবি করেছেন। সিএসআইআর-সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলারেরই চিকিৎসক যোগেন্দ্র শর্মা এ নিয়ে গবেষণা করেন। তার সঙ্গে গবেষণায় যোগ দিয়েছিলেন প্রতিষ্ঠানের আরও কয়েকজন গবেষক।

তাদের দাবি, এই প্রোটিন প্যানক্রিয়াসের বিটা সেল থেকে ক্ষরিত হয়। তা ক্ষরিত হলে ইনসুলিন হরমোনের ক্ষরণ বাড়ে। ফলে ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের মূল সমস্যা ইনসুলিন কমে যাওয়াকে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

এ ছাড়া ডায়াবেটিস আক্রান্তদের শরীরে এই প্রোটিন ক্ষরণ অনেকটাই কমে যায়। ফলে ইনসুলিনের মাত্রাও কমতে থাকে।

এ অবস্থায় গবেষণায় যুক্ত যোগেন্দ্র শর্মা, রাধিকা খান্ডেলওয়াল ও অমরুথা চিদানন্দরা সেই প্রোটিনকেই এবার ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে রোগীদের শরীরে প্রবেশ করিয়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের কথা ভাবছেন। এ পদ্ধতিকে সবচেয়ে কার্যকর বলে তারা দাবি করেছেন।

Check Also

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে দারুচিনি

খাবারের স্বাদ ও সুগন্ধ বাড়াতে দারুচিনি একটি পরিচিত মশলা। এর সুগন্ধ মনকাড়া। কিন্তু এই মশলাই …