মহিলা সিটে বসলে ৫ হাজার টাকা জরিমানা

পাবলিক বাসে মহিলা, শিশু ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সংরক্ষিত আসনে অন্যকেউ বসলে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা বা একমাসের কারাদণ্ড অথবা উভয়দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

গত ২২ অক্টোবর নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকরের তারিখ ঘোষণা করে গেজেট জারি করে সরকার। সেই আইনে এই বিধি সংযুক্ত করা হয়েছে। আইনটি ১ নভেম্বর থেকে শুরু হলেও আগামী সপ্তাহ থেকে পুরোপুরি কার্যকর হবে।

নতুন এই আইনে চালকদের লাইসেন্স পেতে অষ্টম শ্রেণি, সহকারীকে পঞ্চম শ্রেণি পাস হতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্সের বিপরীতে ১২ পয়েন্ট রাখা হয়েছে। আইন ভঙ্গে জেল-জরিমানা ছাড়াও লাইসেন্সের পয়েন্ট কাটা যাবে। পুরো ১২ পয়েন্ট কাটা গেলে লাইসেন্স বাতিল।

এছাড়া এই আইনে বাড়ানো হয়েছে সবধরনের সাজা নতুন আইনে ট্রাফিক সংকেত ভঙ্গের জরিমানা ৫০০ থেকে বাড়িয়ে সর্বোচ্চ ১০ হাজার, হেলমেট না পরলে জরিমানা ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। সিট বেল্ট না বাঁধলে, মোবাইল ফোনে কথা বললে চালকের সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে।

আইন করা হয়েছে পথচারীদের জন্যও নতুন আইনে সড়ক, মহাসড়কে জেব্রা ক্রসিং, ওভার ব্রিজ, আন্ডার পাস ব্যবহার করতে হবে। যত্রতত্র রাস্তা পার হলে পথচারীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হবে।

এদিকে প্রত্যেক ট্রাফিক পুলিশের গায়ে ক্যামেরা লাগানো হবে বলে জানিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার শফিকুল ইসলাম। সোমবার (৪ নভেম্বর) সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রত্যেক ট্রাফিক পুলিশের গায়ে ক্যামেরা লাগানো থাকবে। মামলা দেয়ার সময় ছবি না তোলা থাকলে সেই ট্রাফিকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, নতুন আইনে সাজা বাড়ানো হয়েছে। সাজার ভয়ে আইন মানবেন মানুষ। চালকদের পয়েন্ট সিস্টেম রাখা হয়েছে। চালকদের পয়েন্ট কমতে থাকলে একটা পর্যায় লাইসেন্স বাতিল হয়ে যাবে। সেই চালক আর পরে লাইসেন্স নিতে পারবেন না।

Check Also

এই নারীকে কেউ চেনেন?

হতদরিদ্র অসহায় নারীটি গতকাল সন্ধ্যা থেকে যশোরের নোয়াপাড়ার একটি যাত্রী ছাউনির নিচে অবহেলায় পড়ে আছেন। …