শীত না আসতেই ঠোঁট খসখসে? নজর দিন লিপস্টিকে

হালকা হোক কিংবা গাঢ়, যেকোনো রকম সাজগোজের অন্যতম উপাদান হলো লিপস্টিক। ডার্ক মেরুন বলুন আর হালকা গোলাপি- লিপস্টিক ছাড়া নারীর সাজে পূর্ণতা মেলে না যেন। কিন্তু শীতের শুরু হতে না হতেই এই লিপস্টিক নিয়ে চিন্তায় পড়তে হয়। কারণ বছরের অন্যান্য সময় নিশ্চিন্তে ম্যাট লিপস্টিক ব্যবহার করলেও এই শুষ্ক আবহাওয়ায় তা যেন সম্ভব হয় না। বরং ঠোঁট হয়ে পড়ে খসখসে। তাই এই সময় নজর দিন লিপস্টিকের দিকে-

গ্লসি লিপস্টিক: তেলতেলে ভাবের কারণে গ্লসি লিপস্টিককে সেকেলে বলে মনে করেন অনেকে। আশির দশকের চিত্রনায়িকাদের ছবি চোখে ভেসে ওঠে। কিন্তু গ্লসি লিপস্টিক এখন অনেক আধুনিক হয়েছে এবং ঠোঁট চকচক করে না আগের মতো, ঠোঁটের স্বাভাবিক আর্দ্র ভাবও বজায় থাকে। যারা ঠোঁট পুরন্ত আর সরস দেখাতে চান, তারা ম্যাটের বদলে গ্লসি লিপস্টিক বেছে নিন। শীতের দিনে ওয়াইন, বেরি আর ব্রাউন শেডের গ্লসি লিপস্টিক পরলে চমৎকার দেখাবে।

স্যাটিন লিপস্টিক: স্যাটিন লিপস্টিক টেক্সচার হলো সবচেয়ে সাধারণ আর চেনা টেক্সচার, যা শীতকালের জন্য সেরা। স্যাটিন লিপস্টিকে একটা ক্রিমের মতো ভাব আছে, যা শীতকালের পক্ষে একদম সঠিক। এই ধরনের লিপস্টিক ব্যবহার করলে ঠোঁটে একটা হালকা সুন্দর রঙের আভাস থাকে ঠিক টিন্টেড বামের মতোই, যা এই সময়ের পক্ষে আদর্শ পছন্দ।

ম্যাট লিপস্টিক: দীর্ঘদিন ধরে ম্যাট লিপস্টিক ব্যবহারের কারণে অন্যকিছু ভালো নাও লাগতে পারে। যারা এই সময়েও ম্যাট লিপস্টিকই ব্যবহার করতে চান, তাদের ঠোঁটের প্রতি আলাদা যত্নশীল হতে হবে। ম্যাট লিপস্টিক পরার আগে প্রথমে ঠোঁটে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে নিন যাতে ঠোঁট আর্দ্র থাকে। ব্রাশ ব্যবহার করে ঠোঁট এক্সফোলিয়েট করুন, এরপর লাগান লিপ বাম। তারপরে লিপস্টিক পরুন। এতে লিপস্টিকের ম্যাটি টেক্সচার খানিকটা কম হলেও আপনার ঠোঁট থাকবে সতেজ।

Check Also

সাত দিনেই ‘চোখের পাপড়ি’ ঘন ও লম্বা করার দারুণ উপায়

নারীদের সব থেকে বেশি সৌন্দর্য লুকিয়ে থাকে তাদের চোখের মধ্যে। আর চোখের সৌন্দর্য দিগুণ হয়ে …