এক কোটি টাকার শিল্পকর্ম খেয়ে ফেললেন দর্শনার্থী!

দেয়ালে টেপ দিয়ে আটকানো একটি কলা। ইতালীয় শিল্পী মৌরিজিও ক্যাটেলানের শিল্পকর্ম এটি। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘দ্য কমেডিয়ান’। আর দাম ধরা হয়েছে বাংলাদেশি মুদ্রায় এক কোটি টাকারও বেশি।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের আর্ট বাসেল মিউজিয়ামে প্রদর্শিত এই শিল্পকর্ম এরই মধ্যে হইচই ফেলে দিয়েছে পুরো বিশ্বে। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো, এরই মধ্যে জাদুঘরের দেয়ালে আটকানো ওই কলা খেয়ে ফেলেছেন এক দর্শনার্থী। তবে এতে মোটেই বিক্ষুব্ধ নয় কর্তৃপক্ষ। মজার ছলেই কাজটি করেছেন ওই দর্শনার্থী। সংবাদ সংস্থা ইউনাইটেড প্রেস ইন্টারন্যাশনাল (ইউপিআই) এ খবর জানিয়েছে।

গত রোববার পারফরম্যান্স আর্টিস্ট ডেভিড দাতুনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই কলা খাওয়ার একটি ভিডিও শেয়ার করেন। সেখানে দেখা যায়, দেয়াল থেকে টেপ খুলে দামি কলাটি খেয়ে ফেলছেন তিনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কর্তৃপক্ষ জানায়, এ ঘটনায় দাতুনার কাছ থেকে কোনো ক্ষতিপূরণ আদায় করার পরিকল্পনা নেই তাদের।

ওই প্রদর্শনীতে এ রকম তিনটি শিল্পকর্ম রয়েছে। তার মধ্যে বিক্রি হয়েছে দুটি। ফ্রান্সের দুজন ব্যক্তি কিনেছেন সেগুলো। আর তা দেখে তৃতীয় কলাটির দাম আরো বাড়িয়ে দেন মৌরিজিও। যদি সেটি বিক্রি না হয়, তাহলে তা কোনো জাদুঘরে দিয়ে দেবেন বলে ঠিক করেছিলেন তিনি।

হঠাৎ এই কলার শিল্পকর্মের বিষয়টি কীভাবে মাথায় এলো, জানতে চাইলে মৌরিজিও জানান, অনেক দিন ধরেই তিনি চেষ্টা করছিলেন কলা দিয়ে কিছু বানানো যায় কি না। কিন্তু কোনো কিছুই মনে ধরছিল না তাঁর। হঠাৎ একদিন মনে হলো, কলা দিয়ে কিছু না বানিয়ে সেটিকেই শিল্পের মতো সাজিয়ে রাখা যায়। সেখান থেকেই এ পরিকল্পনা মাথায় আসে তাঁর। পরে বাজার থেকে ৪০ টাকা দিয়ে একটি কলা কেনেন মৌরিজিও। তার পর তা টেপ দিয়ে দেয়ালে আটকে দিয়ে শিল্পকর্ম হিসেবে সাজিয়ে রাখেন।

অনেকের প্রশ্ন, এই কলা তো কয়েক দিন পর নষ্ট হয়ে যাবে। তখন কী হবে? মৌরিজিও বলেন, ‘অন্য একটি কলা কিনে দেয়ালে আটকে নেবেন। শিল্পের মূল্য তো আর নষ্ট হবে না।’

আর্ট বাসেল গ্যালারির প্রতিষ্ঠাতা ইমানুয়েল পেররোটিন জানিয়েছেন, বিশ্ব বাণিজ্যের প্রতীক হলো কলা। একে দুই অর্থে ব্যবহার করা যেতে পারে। এর একটি মজার দিকও রয়েছে। তাই মৌরিজিওর এই শিল্প নিয়ে লোকের মধ্যে এত উৎসাহ। তিনি বলেন, ‘মৌরিজিওর শিল্প শুধু কোনো বস্তুকে নিয়ে নয়। এর মাধ্যমে পুরো বিশ্বকে চেনান তিনি। এটা আর্ট গ্যালারির কোনো দেয়ালেই থাক কিংবা কোনো জার্নালের ফ্রন্ট পেজে, মৌরিজিও আমাদের প্রশ্ন করতে শেখান, কোন পণ্যের মূল্য ঠিক কতটা।’

এ ধরনের অদ্ভুত কাজের জন্য বিখ্যাত মৌরিজিও। এর আগে ১৮ ক্যারেট সোনা দিয়ে একটি টয়লেট বানিয়েছিলেন মৌরিজিও। তার নাম দিয়েছিলেন ‘আমেরিকা’। এই টয়লেট কয়েক দিন আগে ইংল্যান্ডের একটি জাদুঘর থেকে চুরি হয়ে যায়।

Check Also

১৪ পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীর শারীরিক সম্পর্ক, ক্ষতিপূরণ চাইলেন স্বামী

পরকীয়ায় মেতে আছেন স্ত্রী। হঠাৎ এমন সন্দেহ হয় স্বামীর। এর জেরেই গোয়েন্দা দিয়ে খোঁজ-খবর নিলেন। …