কিংবদন্তি চিত্রগ্রাহককে অশ্রুসজল বিদায়

চলচ্চিত্র অঙ্গনের সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন দশবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কারপ্রাপ্ত চিত্রগ্রাহক মাহফুজুর রহমান। এফডিসিতে সাবেক-বর্তমান সব চলচ্চিত্রের শিল্পী ও কলাকুশলীদের উপস্থিতিতে শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় মাহফুজুর রহমানের দ্বিতীয় জানাযা। এসময় অনেক তারকাকেই শোকে বিহ্বল হয়ে অশ্রু বিসর্জন করতে দেখা যায়। বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর একটি হাসপাতালে মাহফুজুর রহমান মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর প্রথম জানাযা বাদ জুম্মা অনুষ্ঠিত হয় চকবাজারে। গত ২৫ নভেম্বর মাহফুজুর রহমানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপর থেকেই লাইফ সাপোর্টে রাখা হয় এই চিত্রগ্রাহককে। কিন্তু ২৮ নভেম্বর ফুসফুস ও পাকস্থলীতে থেমে থেমে রক্তক্ষরণ হচ্ছিলো বলে জানান তার চিকিৎসকরা। এমনকি বিভিন্ন অঙ্গ অকার্যকর হয়ে পড়ে তার। এছাড়াও দীর্ঘদিন ধরে মাহফুজুর রহমান খান ডায়াবেটিস ও ফুসফুসের রোগে ভুগছিলেন। তার স্ত্রী মারা যান ২০০১ সালে। তখন থেকেই ধীরে ধীরে তিনি অসুস্থতায় পড়েন। তার চিত্রগ্রহণের ছবিগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য আমার জন্মভূমি, অভিযান, মহানায়ক, চাঁপা ডাঙ্গার বউ, ঢাকা ৮৬, অন্তরে অন্তরে, পোকা মাকড়ের ঘর বসতি, আনন্দ অশ্রু, শ্রাবণ মেঘের দিন, দুই দুয়ারী, চন্দ্রকথা, নন্দিত নরকে, হাজার বছর ধরে, বৃত্তের বাইরে, ঘেটুপুত্র কমলা।

Check Also

২৪ বছর পর দেশে ফিরে মা-বাবার সামনেই লাশ হলেন ছেলে

২৪ বছর পর ছেলে বিদেশ থেকে আসবে জেনে বাবা-মা আগেই ঢাকায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে …