‘তুমি কুৎসিত’ শুনে আসা মেয়েটি আজ মিস ইউনিভার্স!

দক্ষিণ আফ্রিকার জোজিবিনি তুনজির গায়ের রং কালো। চুল দেখলে আর দশজন নারীর মতো মনেই হয় না। এসব কারণে তাকে ‘কুৎসিত’ বলতো তার দেশের একাংশ। সেই জোজিবিনি সৌন্দর্যের সংজ্ঞা পাল্টে আজ মিস ইউনিভার্স-২০১৯ সালের খেতাব জিতে নিয়েছেন। সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিশ্ব আসরে আসার পর তুনজি একাধিকবার তার সেই পুরোনো দিনের বঞ্চনার কথা বলেছেন। রবিবার (৮ ডিসেম্বর) রাতে খেতাব জয়ের পরও বললেন, ‘আমি এমন একটি বিশ্বে বেড়ে উঠেছি, যেখানে আমার মতো মেয়েদের চামড়ার রং এবং চুলের কারণে সুন্দরীদের কাতারে ফেলা হয় না। কেউ কেউ তো কুৎসিতও বলে। আমি মনে করি আজ থেকেই এটা থামানোর সময়।’

মিস সাউথ আফ্রিকা নিজের দেশের প্রতিযোগিতায় ফাইনাল স্পিচে বলেছিলেন, ‘আমি আমার প্রকৃত চুল নিয়ে এই প্রতিযোগিতায় এসেছি কারণ আমার বিশ্বাস, নিজের স্বচ্ছ উপস্থাপন যেকোনো আকৃতিতেই হতে পারে। আমার জেতার মধ্য দিয়ে আমি বিশ্বাস করি একজন হলেও অনুপ্রাণিত হবে যেন নিজের পরিচিতির সাথে কখনো কেউ কম্প্রোমাইজ না করে। আমাদের আরো বেশি এমন প্রতিযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে যেখানে আমাদের মনে হয় আমরা এই জায়গার জন্য নই অথবা আমরা এখানে কিছুই করতে পারব না। কিন্তু সত্যি হলো এই জায়গাটা আমাদের ও।’ যারা চেহারা নিয়ে হতাশায় ভোগেন তাদের প্রতিও বার্তা দিয়েছেন সত্যিকারের এই সুন্দরী, ‘বাচ্চাদের বলব আমার দিকে তাকাও। আমার মুখ দেখ। আমাতে খুঁজে নাও তোমাকে।’ এদিন রাতে আটলান্টায় ২০১৮ সালের মিস ইউনিভার্স ফিলিপাইনের ক্যাটরিওনা গ্রে তুনজির মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন। এবারের প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ হয়েছেন মিস পুয়ের্তোরিকো ম্যাডিসিন অ্যান্ডারসন এবং দ্বিতীয় রানার আপ মিস মেক্সিকো সোফিয়া আরাগন।

Check Also

১৪ পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীর শারীরিক সম্পর্ক, ক্ষতিপূরণ চাইলেন স্বামী

পরকীয়ায় মেতে আছেন স্ত্রী। হঠাৎ এমন সন্দেহ হয় স্বামীর। এর জেরেই গোয়েন্দা দিয়ে খোঁজ-খবর নিলেন। …