পুত্র না হওয়ায় অখুশি দাদি, কন্যাশিশুকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যা

পুত্র সন্তানের প্রত্যাশা নিয়ে সন্তানসম্ভবা পুত্রবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করেছিলেন শাশুড়ি। কিন্তু জন্ম নিল ফুটফুটে একটি কন্যা শিশু। পুত্র সন্তান না জন্ম নেওয়ায় অখুশি হন শাশুড়ি। আর ধারণা করা হচ্ছে এ কারণেই জীবন দিতে হয়েছে সেই নবজাতক শিশুটিকে।

সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে জানায়, ছাদ থেকে ছুড়ে ফেলে এক শিশুকে হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনায় শিশুটির দাদিকে (বাবার মা) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শুক্রবার রাতে ভারতের বেঙ্গালুরুর মেদারাল্লি এলাকায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। শাশুড়ি পরমেশ্বরীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন শিশুটির মা তামিলসেলভি।

ওই শিশটির মা জানান, শাশুড়ির কাছে মেয়েকে রেখে গোসল করতে গিয়েছিলেন তিনি। ফিরে এসে আর মেয়ের দেখা পাননি। তা নিয়ে প্রশ্ন করলে শাশুড়ি জানান, কিছু লোক জোর করে বাড়িতে ঢুকে পড়েছিল। তারাই শিশুটিকে কেড়ে নিয়ে গেছে।

এই ঘটনা শুনে সন্দেহ হয় তামিলসেলভির। তাই তিনি পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে তল্লাশি চালিয়ে বাড়ির সংলগ্ন একটি খালি জায়গায় শিশুটির মরদেহ পায়। তার মাথায় গভীর ক্ষত ছিল।

তারপর শিশুটিকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুলিশের জেরার মুখে নিজের অপরাধ স্বীকার করেন শিশুটির দাদি পরমেশ্বরী। পরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

Check Also

তিন যুবকের বুদ্ধিমত্তায় রক্ষা পেল ট্রেন দুর্ঘটনা

বগুড়ায় তিন যুবকের বুদ্ধিমত্তায় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল ট্রেন। রেলওয়ে লাইন ভাঙা দেখে হাতে …