মাখন খেয়েও যেভাবে নির্মেদ থাকেন কারিনা!

স্লিম থাকতে আমরা কতো কিনা করি। অনেক পছন্দের খাবারও খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিয়ে দেই। কিন্তু বলিউডের সুনামখ্যাত অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খান করেন ঠিক ওয়ের উল্টোটা।

নিউট্রিশনিস্ট রুজুতা দিওয়েকর জানিয়েছেন, এই ফাস্ট এবং ইনস্ট্যান্ট জীবন প্রণালী হল আমাদের স্ফীত মধ্যপ্রদেশের জননী! কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ইনস্টাগ্রামে নিজের ক্লায়েন্ট কারিনা কাপুর খানের একটি ছবি পোস্ট করেন রুজুতা। ছবিতে কারিনা কাপুর খানকে দেখা যাচ্ছে বেশ আয়েশ করে পাঞ্জাবি পদ্ধতিতে বানানো মক্কি দি রোটি এবং সর্ষের শাক খাচ্ছেন তাও আবার তাজা মাখন দিয়ে! এসব খেয়েও এত ছিপছিপে ও আকর্ষক কেমন করে থাকেন কারিনা! রুজুতা জানিয়েছেন গোড়াতেই রয়েছে গলদ, দেশীয় এবং মরসুমি খাবারকে খাদ্যতালিকা থেকে ছেঁটে ফেলা এবং সময় বাঁচানোর মরিয়া চেষ্টাই শরীরকে করে তুলছে হাজার রোগের বাসা, সঙ্গে বাড়ছে ওজন।

কারিনা কাপুরের ছবি পোস্ট করে রুজুতা লিখেছেন, “দেশীয় খাবার তারিয়ে তারিয়ে খাওয়ার আনন্দই আলাদা। প্রত্যেকটি প্রদেশে মরসুমি ফলন ও চিরায়ত রন্ধন পদ্ধতি ব্যবহার করে কিছু বিশেষ সুস্বাদু আহার তৈরি হয়। আমাদের এমন ডায়েট মেনে চলা উচিত যেগুলো এই সব খাবার উপভোগ করতে উৎসাহ দেয় এবং যে ডায়েট এই সব তাজা, সুস্বাদু খাবার পরিহার করতে বলে সেগুলোকে এড়িয়ে চলাই বুদ্ধির কাজ।…তাই কারিনা কাপুরকে দেখে শিখুন এবং আপনারাও মাখন, রুটি, শাক খেয়ে দেখুন ডিনারে! তবে, কারিনা মাখন, রুটি, শাক খাচ্ছে কারণ ও এখন পাঞ্জাবে আছে এবং ওই অঞ্চলে এটাই এখনকার মরসুমি খাবার। আপনারাও আপনাদের বাসস্থান অনুযায়ী মরসুমি খাবার বেছে নিন যা দেশীয় পদ্ধতিতে বানানো”।

Check Also

রোজায় যে ৫ ভুল ওজন বাড়ায়

রোজা মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। রোজা রাখার নানা উপকারিতাও বৈজ্ঞানিকভাবেও প্রমানিত। চলছে রোজার …