রূপচর্চার সময় নেই, এরপরও সৌন্দর্য বাড়বে!

সবাই ব্যস্ত, দিনগুলো যেন ৩০ ঘণ্টার হলে বেশ হতো। কিছু হলেই খাওয়ার সময় নাই, ঘুমানোর সময় নাই, বেড়াতে যাওয়ার সময় নাই এমন কি প্রিয় মানুষদের ফোন করে একটু কথা বলার মতো সময়ও নাই অনেকের। এই যখন অবস্থা তাদের যদি বলা হয় প্রতিদিন এই প্যাক-সেই প্যাক মেখে আধা ঘণ্টা বসে থাকুন। বুঝতেই পারছেন কি উত্তর আসবে। তাহলে তাদের জন্য কী করা যায়!

একটা উপায় অবশ্য আছে, তেমন কোনো সময়ই দিতে হবে না ত্বকের যত্নে, আবার ত্বক সৌন্দর্য সবই থাকবে ঠিকঠাক। কীভাবে? খুব সহজ, জেনে নিন:

বাড়ি থেকে বেড়োনোর সময় হালকা একটু সাজগোজ তো করাই হয়। ফিরে এসে ঠিকমতো সেই প্রশাধনী তোলাও হয়। হুম রহস্য এখানেই। বাজারের কেনা মেকআপ রিমুভারের বদলে বেছে নিন প্রাকৃতিক উপাদান।

• মেকআপ তুলতে বেছে নিতে পারেন নারকেল, অলিভ, সুইট আমন্ড জাতীয় তেল। যত গাঢ় মাসকারা বা লিপস্টিকই হোক, তেলের মাধ্যমে তা উঠবেই। ত্বকও থাকবে তরতাজা-কোমল-উজ্জ্বল। এই তেলগুলো অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল হওয়ায় ব্রণ ও ৠাশ থেকে মুক্তি দেয়।

• জানেন তো দুধ হচ্ছে বেস্ট ময়েশ্চারাইজার ও বেস্ট ক্লিনজার। হাজার বছর আগে রাজপরিবারের সুন্দরী নারীরা দুধে গোসল করতেন। ত্বকের জন্য দুধ অত্যন্ত উপকারী। ত্বক ভেতর থেকে পরিষ্কার ও সুস্থ রাখতে দুধ দিয়ে ত্বকের মেকআপ তুলুন।

• মেকআপ তোলার জন্য তুলার বলে অল্প দই লাগিয়ে নিন। এবার সারা মুখে সেই দই লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুলেই দেখবেন, সব মেকআপ উঠে গেছে আর ত্বক গ্লো করছে।

• শসা মিহি করে বেটে নিন। ত্বকে লাগিয়ে নরম ও শুকনো কাপড় দিয়ে আলতো করে মুছে নিন।

মেকআপ তোলার সঙ্গে সঙ্গেই ত্বকের যত্নও হয়ে গেল, এবার আয়নায় নিজেকে দেখে মিষ্টি করে হাসুন। আর সুন্দর-উপকারী এই উপাদানগুলোর জন্য প্রকৃতিকে ধন্যবাদ দিন।

Check Also

যে কারণে শ্বেতী বা ধবল রোগ হয়

শ্বেতী বা ধবল রোগ নিয়ে আমাদের সমাজে নানা ধরনের কুসংস্কার প্রচলিত আছে, যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। …