সিসি ক্যামেরা ফুটেজে নেই রুম্পার বন্ধু সৈকত

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পাকে হত্যা করা হয়েছে- এটি সামনে রেখেই তদন্তকাজ চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। তবে এখনও পর্যন্ত এ ব্যাপারে কুলকিনারা করতে পারেনি মামলার তদন্ত সংস্থা ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)।

এরই মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রুম্পার বন্ধু রাইমান সৈকতকে গ্রেপ্তার করেছে। তাঁকে চারদিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে ডিবি।

মঙ্গলবার বিকেলে ডিবি দক্ষিণের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) রাজীব আল মাসুদ এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্স ভবনসহ পেছনের দুটি ভবনের সিসিটিভির ফুটেজ আমরা সংগ্রহ করেছি। তা যাচাই-বাছাই করে ওই ভবনগুলোতে রাইমান সৈকতের প্রবেশ কিংবা বের হতে দেখা যায়নি। তবে আমরা অন্য অনেক সম্ভব্য কারণকে সামনে রেখে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছি।’

অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বলেন, ‘তবে ঘটনার দিন রাইমান সৈকতের সঙ্গে স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির সিদ্ধেশ্বরী ক্যাম্পাসে শারমিন রুম্পা দেখা করেছিলেন। তখন রুম্পা সৈকতকে তাঁদের প্রেমের সম্পর্কটি টিকিয়ে রাখতে অনুরোধ করেন। কিন্তু সৈকত বলে দেন যে, এই সম্পর্ক তাঁর রাখা সম্ভব না। এসব কথা সৈকতও আমাদের কাছে স্বীকার করেছেন।’

রাজীব আল মাসুদ বলেন, ‘আমরা তাদের সম্পর্কে আরো অনেক তথ্য সংগ্রহ করার চেষ্টা করছি। রুম্পাকে যদি হত্যা না করা হয় তাহলে তাঁকে আত্মহত্যায় বাধ্য করা হয়েছে কিনা সেটাও আমরা খতিয়ে দেখছি। সব মিলিয়ে এর বাইরে আপাতত ওই মামলার কোনো অগ্রগতি নেই আমাদের কাছে। মামলার তদন্ত গুছিয়ে আনতে আরো কিছু সময় লাগবে আমাদের।’

এর আগে গত শনিবার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা জোনের জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) শেখ মোহাম্মদ শামীম বলেছিলেন, ‘প্রেমের সম্পর্কের জেরে শারমিন রুম্পাকে হত্যা করা হয়েছে এটা নিশ্চিত। সৈকত নামের একজনের সঙ্গে রুম্পার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আমরা সৈকত-সংশ্লিষ্ট অনেককে জিজ্ঞাসাবাদ করছি। প্রাথমিকভাবে আমরা নিশ্চিত হয়েছি, প্রেমের কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।’

রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনের দুটি ভবনের মাঝখান থেকে গত বুধবার রাতে শারমিন রুম্পার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রুম্পার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ সদর উপজেলার বিজয়নগর গ্রামে। তাঁর পরিবার মালিবাগের শান্তিবাগের একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে। পরে পরিবার গিয়ে রুম্পার লাশ শনাক্ত করে। গত বৃহস্পতিবার রমনা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল খায়ের বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এনটিভি অনলাইন

Check Also

‘স্বামী-শাশুড়ির মদদে ভাসুরও আমাকে ধর্ষণ করে’

দিন যত যাচ্ছিল ততই জনপ্রিয়তা বাড়ছিল টিকটকখ্যাত হুগলির এক গৃহবধূর। সম্প্রতি এক ভিডিও বার্তায় তার …